Dhaka ১২:৫৮ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাবুগঞ্জে সাপের ছোবলে শিশুর মৃত্যু!  

  • Reporter Name
  • Update Time : ০৮:০১:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪
  • ৪২৫ Time View

বাবুগঞ্জ(বরিশাল)প্রতিনিধি: বরিশালের বাবুগঞ্জে বিষধর সাপের ছোবলে এক শিশুর মৃত্যু বরন করেছে।

মৃত শিশু আব্দুল আহাদ(৭) উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের সিলনদিয়া গ্রামের আরিফ হোসেন হাওলাদারের ছেলে। আব্দুল আহাদ জাহাপুর দাখিল মাদ্রাসার ২য় শ্রেণির ছাত্র। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯ টার দিকে।
স্থানীয়রা সাপটিকে গর্ত খুরে বের করে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। বিষয়টি নিশ্চত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য এসএম মনিরুজ্জামান বলেন, শিশুটি সকালে ঘুম থেকে উঠে রান্না ঘরের পাশে প্রসাব করতে যায়। ওই রান্না ঘরের পাশের গর্তে থাকা জাতি সাপ তাকে ছোবল দেয়। কিছুক্ষন পর সে অসুস্থ হয়ে পরে। বিষয়টি বুজতে পেরে পরিবার ও স্থানীয়রা শিশুটিকে নিয়ে শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে যায়। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।  শিশুটির দেওয়া লোকেশন অনুযায়ী সাপটিকে আমরা গর্ত থেকে বের করে মেরে ফেলেছি।
স্থানীয় বিদেশ ফেরত মুরাদ সরদার বলে শিশুটি মেধাবী ছিলো। বিষধর সাপের ছোবলের সাথে সাথে পায়ে রশি দিয়ে বাঁধ দিতে পারলে হয়তো বাচানো যেতো। বাঁধ দিতে দেরী হওয়ায় বিষ শরীরে ছড়িয়ে পরায় তাকে বাঁচানো সম্ভব হয় নি। #
Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Arif Hossain

মাদারীপুরের শিবচরে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু

বাবুগঞ্জে সাপের ছোবলে শিশুর মৃত্যু!  

Update Time : ০৮:০১:৩৭ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ মার্চ ২০২৪

বাবুগঞ্জ(বরিশাল)প্রতিনিধি: বরিশালের বাবুগঞ্জে বিষধর সাপের ছোবলে এক শিশুর মৃত্যু বরন করেছে।

মৃত শিশু আব্দুল আহাদ(৭) উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের সিলনদিয়া গ্রামের আরিফ হোসেন হাওলাদারের ছেলে। আব্দুল আহাদ জাহাপুর দাখিল মাদ্রাসার ২য় শ্রেণির ছাত্র। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯ টার দিকে।
স্থানীয়রা সাপটিকে গর্ত খুরে বের করে পিটিয়ে মেরে ফেলেছে। বিষয়টি নিশ্চত করে স্থানীয় ইউপি সদস্য এসএম মনিরুজ্জামান বলেন, শিশুটি সকালে ঘুম থেকে উঠে রান্না ঘরের পাশে প্রসাব করতে যায়। ওই রান্না ঘরের পাশের গর্তে থাকা জাতি সাপ তাকে ছোবল দেয়। কিছুক্ষন পর সে অসুস্থ হয়ে পরে। বিষয়টি বুজতে পেরে পরিবার ও স্থানীয়রা শিশুটিকে নিয়ে শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নিয়ে যায়। এসময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।  শিশুটির দেওয়া লোকেশন অনুযায়ী সাপটিকে আমরা গর্ত থেকে বের করে মেরে ফেলেছি।
স্থানীয় বিদেশ ফেরত মুরাদ সরদার বলে শিশুটি মেধাবী ছিলো। বিষধর সাপের ছোবলের সাথে সাথে পায়ে রশি দিয়ে বাঁধ দিতে পারলে হয়তো বাচানো যেতো। বাঁধ দিতে দেরী হওয়ায় বিষ শরীরে ছড়িয়ে পরায় তাকে বাঁচানো সম্ভব হয় নি। #