Dhaka ০৬:১৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মাদারীপুরে মুক্তিসেনা স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ

 

মাদারীপুর সদর উপজেলায় পাঁচখোলা মুক্তিসেনা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশনা উপেক্ষা ও অনিয়ম করে একটি প্রভাবশালী মহল গঠনতন্ত্র উপেক্ষা ও আইন লঙ্ঘন করে পছন্দের লোকজন দ্বারা একটি পকেট কমিটি গঠন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে এলাকাবাসী শিক্ষক শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এদিকে পকেট কমিটি অনতিবিলম্বে বাতিল করে নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। প্রয়োজনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিবেন বলে জানিয়েছেন ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি আক্তার হোসেন সেন্টু মুন্সি জানান, নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনের নির্দেশনা থাকলেও তা গোপন রেখে প্রধান শিক্ষক এলাকার একটি প্রভাবশালী মহলকে নিয়ে গোপনে কমিটি গঠন করেছে। কারো সাথে কোন আলোচনা না করেই এই কমিটি গঠন করেছে,প্রধান শিক্ষকের স্বেচ্ছাচারিতা এবং তার দুর্নীতি এবং অনিয়মকে ধামাচাপা দিতে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিনি একা একাই সব কাগজপত্র বানিয়ে নিজের মন গড়া কমিটি গঠন করেছে। আমরা এই কমিটিকে বিলুপ্ত করে নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নতুন কমিটির করার আহŸান জানাই। একাধিক অভিভাবক বলেন,আমাদের সাথে কোন প্রকার আলোচনা ছাড়াই প্রধান শিক্ষক অদৃশ্য শক্তির বলে এই কমিটি করেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অত্র স্কুলের কর্মচারী অভিযোগ করে বলেন প্রতিবার স্কুল কমিটির নির্বাচনের সময় আমরা জানতাম এবার কিভাবে কখন এই কমিটি গঠন হলো আমরা এর কিছুই জানিনা। জানতে চাইলে স্কুলের বর্তমান নবগঠিত কমিটির সভাপতি ইলিয়াস পারভেজ বলেন, নির্বাচনের বিষয়ে আমি কিছুই বলতে পারবো না৷ প্রধান শিক্ষক সব জানে। এ বিষয় স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল বাসারের কাছে নির্বাচন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি দাবি করেন, শিক্ষা বোর্ডের নিয়ম মেনেই কমিটি গঠন করা হয়েছে। রাতের আধারে কমিটি গঠন করা হয় নাই। যারা এখন অভিযোগ করছে তারা বর্তমান কমিটি থেকে বাদ করার কারনেই এমন কথা বলছে। মাদারীপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আল মামুন বলেন এ বিষয় আমরা লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Nazmul Haque

Popular Post

মাদারীপুর শহরে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৯

মাদারীপুরে মুক্তিসেনা স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ

Update Time : ০১:১৫:০৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪

 

মাদারীপুর সদর উপজেলায় পাঁচখোলা মুক্তিসেনা উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশনা উপেক্ষা ও অনিয়ম করে একটি প্রভাবশালী মহল গঠনতন্ত্র উপেক্ষা ও আইন লঙ্ঘন করে পছন্দের লোকজন দ্বারা একটি পকেট কমিটি গঠন করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এনিয়ে এলাকাবাসী শিক্ষক শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। এদিকে পকেট কমিটি অনতিবিলম্বে বাতিল করে নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা। প্রয়োজনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিবেন বলে জানিয়েছেন ক্ষুব্ধ অভিভাবকরা। বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক সভাপতি আক্তার হোসেন সেন্টু মুন্সি জানান, নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনের নির্দেশনা থাকলেও তা গোপন রেখে প্রধান শিক্ষক এলাকার একটি প্রভাবশালী মহলকে নিয়ে গোপনে কমিটি গঠন করেছে। কারো সাথে কোন আলোচনা না করেই এই কমিটি গঠন করেছে,প্রধান শিক্ষকের স্বেচ্ছাচারিতা এবং তার দুর্নীতি এবং অনিয়মকে ধামাচাপা দিতে এই কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিনি একা একাই সব কাগজপত্র বানিয়ে নিজের মন গড়া কমিটি গঠন করেছে। আমরা এই কমিটিকে বিলুপ্ত করে নির্বাচন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নতুন কমিটির করার আহŸান জানাই। একাধিক অভিভাবক বলেন,আমাদের সাথে কোন প্রকার আলোচনা ছাড়াই প্রধান শিক্ষক অদৃশ্য শক্তির বলে এই কমিটি করেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অত্র স্কুলের কর্মচারী অভিযোগ করে বলেন প্রতিবার স্কুল কমিটির নির্বাচনের সময় আমরা জানতাম এবার কিভাবে কখন এই কমিটি গঠন হলো আমরা এর কিছুই জানিনা। জানতে চাইলে স্কুলের বর্তমান নবগঠিত কমিটির সভাপতি ইলিয়াস পারভেজ বলেন, নির্বাচনের বিষয়ে আমি কিছুই বলতে পারবো না৷ প্রধান শিক্ষক সব জানে। এ বিষয় স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল বাসারের কাছে নির্বাচন সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি দাবি করেন, শিক্ষা বোর্ডের নিয়ম মেনেই কমিটি গঠন করা হয়েছে। রাতের আধারে কমিটি গঠন করা হয় নাই। যারা এখন অভিযোগ করছে তারা বর্তমান কমিটি থেকে বাদ করার কারনেই এমন কথা বলছে। মাদারীপুর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মো.আল মামুন বলেন এ বিষয় আমরা লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।