Dhaka ০১:১৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সৌদি  থাকা অবস্থায় ৩ মামলার শিকার প্রবাসীর সংবাদ সম্মেলন

 

মাদারীপুরের রাজৈরে ভবনসহ জায়গা কিনে মহাবিপদে পড়েছেন প্রবাসী মোহাম্মদ আলী শেখ(৪৫)। তিনি সৌদি অবস্থানরত সময় তার বিরুদ্ধে ৩টিসহ মোট ৪টি মামলা করেছে জায়গা বিক্রেতা হান্নান লস্করের ভাই ও তার স্বজনেরা। এরই প্রতিবাদে ( ৮ জুন) শনিবার দুপুরে রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দরে রাজৈর উপজেলা প্রেসক্লাবের স্থায়ী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই সৌদি প্রবাসী। তিনি উপজেলার কদমবাড়ি ইউনিয়নের মহিষমারি গ্রামের মোস্তফা শেখের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে সৌদি প্রবাসী মোহাম্মদ আলী শেখ বলেন, আমি উপজেলার মহিষমারি গ্রামে আমার প্রতিবেশী হান্নান লস্করের কাছ থেকে ২৩ লাখ টাকা দিয়ে একতলা একটি ভবনসহ ১০ শতাংশ জায়গা কিনেছি। কিন্তু আমাকে নোটারী করে বায়নাপত্র দিয়ে প্রথমে ১০ লাখ ও পরে স্ত্রীকে ডাক্তার দেখানোর কথা বলে আরো ১০ লাখ টাকা নিয়ে পরিবারসহ আমেরিকা চলে গেছে হান্নান। এখন আমাকে দলিলও দেয় না আর জায়গাও বুঝিয়ে দিচ্ছে না। উল্টো আমাদের নামে সন্ত্রসী হামলা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন ধারায় ৪টি মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। এরমধ্যে ৩টি মামলা দায়েরের সময় আমি সৌদি ছিলাম। আমি দেশে আসার পর ঘর পুড়িয়ে আরেকটি মামলা করেছে।

সংবাদ সম্মেলনের তার ছোট বোন জামাই মাসুদ মিনা বলেন, আমি থাকি টেকেরহাট পূর্ব স্বরমঙ্গল গ্রামে। মহিষমারি আমার শ্বশুরবাড়ি, মোহাম্মদ আলী আমার সোমন্দি (স্ত্রীর বড় ভাই)। এই সূত্র ধরে কোন ঝামেলা হলেই আমাকে মামলায় দেওয়া হয়। অথচ যারা মামলা করে তারা আমাকে চেনে না আর আমিও তাদেরকে চিনি না। আমি সরকারের কাছে এসব মিথ্যা মামলাকারীদের সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে সৌদি প্রবাসী মোহাম্মদ আলী শেখের বাবা মোস্তফা শেখ উপস্থিত ছিলেন।

 

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Nazmul Haque

মাদারীপুরে অগ্নিকান্ডে পুড়ে গেছে  ১৩ টি  গরু ও ২ হাজার মুরগি

সৌদি  থাকা অবস্থায় ৩ মামলার শিকার প্রবাসীর সংবাদ সম্মেলন

Update Time : ০১:০৯:২৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪

 

মাদারীপুরের রাজৈরে ভবনসহ জায়গা কিনে মহাবিপদে পড়েছেন প্রবাসী মোহাম্মদ আলী শেখ(৪৫)। তিনি সৌদি অবস্থানরত সময় তার বিরুদ্ধে ৩টিসহ মোট ৪টি মামলা করেছে জায়গা বিক্রেতা হান্নান লস্করের ভাই ও তার স্বজনেরা। এরই প্রতিবাদে ( ৮ জুন) শনিবার দুপুরে রাজৈর উপজেলার টেকেরহাট বন্দরে রাজৈর উপজেলা প্রেসক্লাবের স্থায়ী কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওই সৌদি প্রবাসী। তিনি উপজেলার কদমবাড়ি ইউনিয়নের মহিষমারি গ্রামের মোস্তফা শেখের ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে সৌদি প্রবাসী মোহাম্মদ আলী শেখ বলেন, আমি উপজেলার মহিষমারি গ্রামে আমার প্রতিবেশী হান্নান লস্করের কাছ থেকে ২৩ লাখ টাকা দিয়ে একতলা একটি ভবনসহ ১০ শতাংশ জায়গা কিনেছি। কিন্তু আমাকে নোটারী করে বায়নাপত্র দিয়ে প্রথমে ১০ লাখ ও পরে স্ত্রীকে ডাক্তার দেখানোর কথা বলে আরো ১০ লাখ টাকা নিয়ে পরিবারসহ আমেরিকা চলে গেছে হান্নান। এখন আমাকে দলিলও দেয় না আর জায়গাও বুঝিয়ে দিচ্ছে না। উল্টো আমাদের নামে সন্ত্রসী হামলা ও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন ধারায় ৪টি মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে। এরমধ্যে ৩টি মামলা দায়েরের সময় আমি সৌদি ছিলাম। আমি দেশে আসার পর ঘর পুড়িয়ে আরেকটি মামলা করেছে।

সংবাদ সম্মেলনের তার ছোট বোন জামাই মাসুদ মিনা বলেন, আমি থাকি টেকেরহাট পূর্ব স্বরমঙ্গল গ্রামে। মহিষমারি আমার শ্বশুরবাড়ি, মোহাম্মদ আলী আমার সোমন্দি (স্ত্রীর বড় ভাই)। এই সূত্র ধরে কোন ঝামেলা হলেই আমাকে মামলায় দেওয়া হয়। অথচ যারা মামলা করে তারা আমাকে চেনে না আর আমিও তাদেরকে চিনি না। আমি সরকারের কাছে এসব মিথ্যা মামলাকারীদের সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।

সংবাদ সম্মেলনে সৌদি প্রবাসী মোহাম্মদ আলী শেখের বাবা মোস্তফা শেখ উপস্থিত ছিলেন।