দিনাজপুরের বীরগঞ্জে দীর্ঘ ১০আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৬:১৮ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২২ | আপডেট: ৬:১৮:অপরাহ্ণ, জুলাই ২৬, ২০২২

দিনাজপুর প্রতিনিধি – দিনাজপুরে দীর্ঘ ১০ বছর পর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ বীরগঞ্জ উপজেলা শাখার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বীরগঞ্জ সরকারি কলেজ প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন দিনাজপুর-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার। প্রধান বক্তা ছিলেন দিনাজপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল।
বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ২৬ জুলাই মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় জাতীয় সঙ্গীতের তালে তালে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের প্রশাসক আজিজুল ইমাম চৌধুরী এবং বেলা ৩ টায় সম্মেলনের ২য় পর্বে কাউন্সিল অধিবেশন অনুষ্ঠিত শুরু হয়।

বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাকারিয়া জাকার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন দিনাজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলতাফুজ্জামান মিতা, যুগ্ম সম্পাদক মির্জা আশফাক হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফারুকুজ্জামান চৌধুরী মাইকেল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক তরিকুল আলম প্রমুখ।

বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক অধ্যক্ষ মো. খয়রুল ইসলাম চৌধুরী। সঞ্চালনায় ছিলেন বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুর ইসলাম নুর।

সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বজলুল হক, আলাউদ্দিনসহ এর সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী ও সমর্থকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার এমপি তার বক্তব্যে বলেন, নাম ত্রি-বার্ষিক, কিন্তু দীর্ঘ প্রায় ১২ বছর পর হচ্ছে বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। সম্মেলনের মাধ্যমে যেই নেতৃত্বে আসুক না কেন, তার কারণে যেন দল প্রশ্নবিদ্য না হয়। বর্তমানে চালাক কর্মী দিয়ে দল ভরে গেছে। যে যার মত চালাকি করছে। তিনি বলেন, যে দলটির কারণে দেশ স্বাধীন হয়েছে। সমাজের এমন কেউ নাই যাদের নিয়ে ভাবেন না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বেশ কয়েকটি পর্যায়ে ভাতা দিয়ে মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন করছেন তিনি। বাংলাদেশকে অনেক ভালো জায়গায় নিয়ে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে দিয়েছেন তিনি। আওয়ামী লীগ এত কিছু করার পরেও মির্জা ফখরুলরা বলেন, তত্বাবধায়ক সরকারে ভোট দেন। তারা বলেন, দেশ শ্রীলঙ্কার মত হবে। অমার মনে হয়, দেশ শ্রীলঙ্কার মত হলে বিএনপি খুশি হবে। কিন্তু তারা যানে না শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকাকালীন দেশ কখনও শ্রীলঙ্কার মত হবে না। কারণ শেখ হাসিনার হৃদয় দেশ প্রেমে ভরা।

সম্মেলনের প্রধান বক্তা মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি তার বক্তব্যে বলেন, অনেক সম্ভাবনার দেশ বাংলাদেশ। যার উদাহারণ আমার নির্বাচনী এলাকা। আগের তুলনায় বীরগঞ্জ-কাহারোল উপজেলা অনেক এগিয়ে গেছে। আর এটি সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য। তিনি বলেন, বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগকে এমন শক্তিশালী হতে হবে যাতে কোন অপশক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে না পারে।

Print Friendly, PDF & Email