বলগুনার আমতলীতে বেড়েই চলছে করোনা সংক্রামণ। ৭ জন সনাক্ত।

আল নোমান আল নোমান

বরগুনা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১:০৯ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২২ | আপডেট: ১:০৯:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২২

 

আমতলীতে বেড়েই চলছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংক্রামণ। গত ৭ দিনে ৭ জন প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। করোনা ভাইরাসের সংক্রামণ বেড়ে যাওয়ায় মানুষের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। করোনার সংক্রামণ বৃদ্ধি পেলেও মানুষ স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক পরিধান করছে না। এতে সংক্রামণের হার আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশঙ্কা করছেন উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। জানাগেছে, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস গত ১৫ সেপ্টেম্বর মাসে আমতলীতে একজন আক্রান্ত হয়। গত চার মাস ধরে কোন মানুষ আক্রান্ত হয়নি। চার মাস পরে গত ১৬ জানুয়ারী একজন রোগী আক্রান্ত হয়েছেন। কিন্তু চার মাসে আক্রান্ত না হলেও গত এক সপ্তাহে সংক্রামণের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। ৪৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন। করোনায় আক্রান্ত রোগীদের আইসোলেশনে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। দ্রুত করোনার সংক্রামণ বেড়ে যাওয়ার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এদিকে সংক্রামণের হার বেড়ে গেলেও আমতলী উপজেলার সাধারণ মানুষ স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক পরিধান করছে না। তারা অহরহ হাটে-বাজারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। দ্রুত করোনা সংক্রামণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মানতে মাস্ক পরিধানে বাধ্য করতে প্রশাসনের কাছে দাবী জানিয়েছেন সচেতন নাগরিকরা। আমতলী পৌরসভা নাগরিক কমিটির সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত সরকারী অধ্যাপক মোঃ আবুল বিশ^াস বলেন, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রামণ বেড়ে গেলেও মানুষ মাস্ক পরিধান করছে না। এতে সংক্রামণের হার বেড়েই যাবে। সাধারণ মানুষকে দ্রুত মাস্ক পরিধানে বাধ্য করাতে প্রশাসনের কাছে দাবী জানান তিনি। আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আব্দুল মুনয়েম সাদ বলেন, প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রামণের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। এর থেকে পরিত্রাণ পেতে হবে সকলকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে এবং মাস্ক পরিধান করতে হবে। আমতলী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ নাজমুল ইসলাম বলেন, স্বাস্থ্য বিধি ও মাস্ক পরিধান করতে মাইকিং করা হয়েছে। এরপরও যদি কেউ স্বাস্থ্যবিধি না মেনে মাস্ক পরিধান না করে চলাফেরা করে তাদের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email