আজ থেকে ধারাবাহিক নাটক ‘‘বউ দৌড়’’

Fatema Ferdoushi (Anu) Fatema Ferdoushi (Anu)

বিনোদন প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০২১ | আপডেট: ১১:৩৪:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০২১

অনন্যা অনু, বিনোদন প্রতিবেদকঃ

গ্রামীন পারিবারিক আবহে নির্মিত হয়েছে ধারাবাহিক নাটক “বউ দৌড়। মানস পালের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন সামস্ করিম।

নির্মাতা জানান, নাটকটি একটি জীবন্ত চলমান আবহে তৈরি। মানুষের জীবনের প্রতিটি পর্যায় ধাপে ধাপে দেখা যায়। এখানে মানুষের জন্ম-মৃত্যু, সুখ-দুঃখ, হাসি-কান্না, ঝগড়া-বিবাদ, আত্মকলহ, প্রেম-ভালবাসা, বিরহ-বেদনা, মায়া-মমতা, আত্মীয়তা-শত্রুতা, দ্বন্ধ-বিসংবাদ, সামাজিক অবক্ষয় ও প্রতিকারের চেষ্টা, সবই গুচ্ছ আকারে আবদ্ধ একটি দৃশ্যমালা। সকল মানুষই তার জীবনের কোন অংশের ছায়া খুঁজে পাবে তাতে। ভাল-মন্দ, উত্থান-পতন সমাজের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। অনুরুপ সংশ্লিষ্টতা আমরা “বউ দৌড়”নাটকে খুঁজে পাব। তাই এই নাটকটি গ্রামীন আবহে একটি সামাজিক নাটক হিসেবে গন্য হবে।

তারকাবহুল নাটকটিতে অভিনয় করেছেন মোর্শারফ করিম, সালহা খানম নাদিয়া, শামীম জামান, নওশীন ইসলাম দিশা, শতাব্দী ওয়াদুদ, রিমি করিম, সমাপ্তি মাশুক, রোবেনা রেজা জুঁই, তারিক স্বপন, শহিদুল্লা সবুজ, রোদেলা মির্জা, শরীফ হোসেন ইমন, স্বর্ণলতা, জিবন রায়, এ্যাথেনা অধিকারী, ম আ সালাম, শেলী আহসান, সফিক হোসেন দিলু, হান্নান শেলি, সেলজুক ত্বারিক, আমের, শখোরিয়া মন্ডল।

এই তারকাবহুল নাটকটির গল্পে দেখা যাবে, এই নাটকটির কাহিনী গড়ে উঠেছে “মাঠ ভরা ধান তার জল ভরা দিঘী” এমন একটা গ্রামে বসবাসকারি ভিন্ন ভিন্ন শ্রেণীর, ভিন্ন ভিন্ন পেশার মানুষদের জীবন-জীবিকা, সমাজ-সংষ্কারকে কেন্দ্র করে। এই মানুষগুলোর জীবনে একটি অন্যরকম মোচর আসে যখন আশিক শিকদার ডি ভি লটারিতে আমেরিকায় গিয়ে দীর্ঘ দশ বছর পর দেশে ফিরে আসে। বউ দৌড় প্রতিযোগিতা নিয়ে সবার মধ্যে খুব উৎসাহ দেখা গেলেও নিয়মের মারপ্যাচে অনেকের কপালেই চিন্তার ভাজ পড়ে। যেমন ধরা যাক বউ দৌড় প্রতিযোগিতার আয়োজক আশিকের বড় ভাই রোকনের মেয়ে লিজার স্বাস্থ্য এতই শীর্ণকায় যে ইচ্ছা থাকলেও তার স্বামী জিহাদ এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না। এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে হলে লিজাকে বেশি বেশি খেয়ে অবশ্যই স্বাস্থ্য বাড়াতে হবে। যেটা মোটেও সহজ কোন কাজ নয়।

আবার গ্রামের সবচেয়ে মোটা স্ত্রী হাসানের। সে ঘরজামাই থাকে। তার স্ত্রী রমিজা এতই মোটা যে স্বাস্থ্য না কমিয়ে হাসানের পক্ষেও এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করা আদৌ সম্ভব নয়। এমনিভাবে যার স্ত্রীর সাথে বনিবনা হয় না কিংবা স্ত্রীকে যে সদ্য তালাক দিয়েছে তারও কষ্টের সীমা থাকে না। বউ দৌড় প্রতিযোগিতা হবে জানার পর থেকেই এলাকার স্ত্রীদের খুব কদর বেড়ে যায়।সবাই তার স্ত্রীর খুব তোয়াজ খাতির শুরু করে দেয়। এরকম এগিয়ে যাবে ধারাবাহিক নাটক “বউ দৌড়।

আজ সোমবার (৬ ডিসেম্বর) থেকে বাংলাভিশনে শুরু হচ্ছে ‘বউ দৌড়’ নাটকটি। প্রতি সপ্তাহে দুই দিন সোম ও মঙ্গলবার রাত ৮ : ২০ মিনিটে নাটকটি টেলিভিশনে প্রচার হবে।

Print Friendly, PDF & Email