বাবুগঞ্জে ইমাম’র হাত কর্তনের ঘটনায় দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী ঘাতক বাবলুর মায়ের

আরিফ হোসেন আরিফ হোসেন

বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯:১৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০২১ | আপডেট: ৯:১৯:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০২১

ইমাম’র হাত কর্তনের ঘটনায় দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী ঘাতক বাবলুর মায়ের

আরিফ হোসেন, বাবুগঞ্জ: বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নে আলোচিত মসজিদের ইমাম মাওলানা হাফেজ মুহাম্মাদ ইয়াকুব আলীর হাত কর্তনের ঘটনায় দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছেন ঘাতক বাবলুর পরিবার। সাংবাদিকদের দেয়া বক্তব্যে ঘাতক বাবলু ওরফে বাবু মাঝির মা ও বড় ভাই মিন্টু মাঝি বলেন, ইমাম ইয়াকুব আলী একজন আলেম মানুষ। তিনি অত্যান্ত ভালো মানুষ। এলাকায় তার কোন বদনাম নাই। আমরা ইমাম সাহেবকে অনেক সম্মান করি। ইমামের মত ভালো মানুষের যে লোক হাত কেটে নিতে পারে সে আমাদের পরিবারের কেউ না। আমারা বাবলু মাঝির দৃষ্টান্তমূক শাস্তি দাবী করছি এবং ইমামের সুস্থতা কামনা করছি। এসময় এলাকার অনেক মুসুল্লি ইমামের চরিত্র বর্ননা করতে গিয়ে কেঁদে ফেলেছে।
এদিকে রবিবার বাবুগঞ্জে ইমামের হাতের কব্জি কর্তনের প্রতিবাদে জাহাঙ্গীরনগর ইউনিয়নে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে স্থানীয় সাধারণ মানুষ ও বিভিন্ন এলাকার মসজিদের ইমামগণ।
বাবুগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মাওঃ আবদুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মসূচীতে বিচার চেয়ে সন্ত্রাসী বাবলু(বাবু)’র ফাঁসির দাবী করে বক্তব্য রাখেন জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামরুল আহসান হিম খান, মাওঃ বজলুল ইসলাম, ইউপি সদস্য কাইয়ুম, মাওঃ আতিকুর রহমান, মাওঃ নজরুল ইসলাম প্রমূখ। উল্লেখ্য গত ১২নভেম্বর রাতে বাবুগঞ্জ উপজেলার বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের ইসলামপুর বায়তুন ণূর জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মোঃ ইয়াকুব আলী(৩৫)কে কুপিয়ে বাম হাতের কব্জিসহ ডান হাতের দুটি আঙ্গুল শরীর থেকে আলাদা করে ফেলেছে বাবলু মাঝি(২৮) নামের এক যুবক। ঘটনার বিচারের দাবীতে ওই কর্মসূচী পালিত হয়।
স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় ইমাম ইয়াকুব আলীকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পুলিশ স্থানীয়দের সহায়তায় বাবলু মাঝিকে জঙ্গল থেকে আটক করেন। আহত ইয়াকুব আলী বেপারী ওই ইউনিয়নের জাহাপুর এলাকার মৃতঃ আজাহার আলী বেপারীর ছেলে এবং বাবলু মাঝী একই ইউনিয়নের পশ্চিম ইসলামপুর এলাকার মৃতঃ ফরিদ উদ্দিন মাঝির ছেলে। এ ঘটনায় আহত ইয়াকুব আলীর ভাই মোঃ সেলিম বেপারী বাদী হয়ে বাবুগঞ্জ থানায় শনিবার ১৩নভেম্বর আটক বাবলু মাঝিকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন। বাবলু মাঝি এখন জেলহাজতে রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email