পরীক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নতুন নির্দেশনা

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৫:২৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০২১ | আপডেট: ৫:২৯:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৯, ২০২১

কোনো ধারনাকে সমর্থন, খণ্ডন বা যাচাই করার জন্য কার্যপ্রণালীকে পরীক্ষা বলে। পরীক্ষায় কোন নির্দিষ্ট গুনকে প্রভাবিত করে সেটির ফলাফল বর্ণনা করা হয়। এর মাধ্যমে পরীক্ষা কারণ এবং প্রভাবের অন্তর্দৃষ্টি প্রদান করা যায়। উদ্দেশ্য এবং মাত্রার ভিত্তিতে পরীক্ষার পার্থক্য আছে। কিন্তু প্রতিটি পরীক্ষাই ফলাফলের পুনরাবৃত্তিমূলক পদ্ধতি এবং যৌক্তিক বিশ্লেষণের উপর নির্ভর করে

চলতি বছর এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা ১৪ নভেম্বর শুরু হবে। এ জন্য পরীক্ষার্থীদের জন্য কয়েকটি নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের পরিপত্রে বলা হয়েছে, ২০২১ সালের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষা সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য নির্দেশনাসমূহ সবাইকে পালনের জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

এসএসসি পরীক্ষার্থীদের জন্য নির্দেশনাগুলো হলো—

*পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে সব পরীক্ষার্থীকে অবশ্যই পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করে আসন গ্রহণ করতে হবে। অনিবার্য কারণে কোনো পরীক্ষার্থী নির্ধারিত সময়ের পর পরীক্ষা কেন্দ্রে আসলে রেজিস্টারে নাম, রোল নম্বর, প্রবেশের সময় ও বিলম্বের কারণ উল্লেখ করতে হবে।

*কেন্দ্রসচিব ছাড়া পরীক্ষা কেন্দ্রে অন্য কেউ মোবাইল ফোন বা মোবাইল ফোনের সুবিধাসহ ঘড়ি, কলম বা অননুমোদিত ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবে না। কেন্দ্রসচিব ছবি তোলা ও ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধাবিহীন একটি সাধারণ (ফিচার) ফোন ব্যবহার করতে পারবেন।

*প্রত্যেক কেন্দ্রের জন্য একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট/কর্মকর্তারা (ট্যাগ অফিসার) নিয়োগ দিতে হবে। ট্রেজারি বা থানা বা নিরাপত্তা হেফাজত থেকে কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বা তাঁর মনোনীত উপযুক্ত প্রতিনিধি ট্যাগ অফিসারসহ প্রশ্নপত্র গ্রহণ করে পুলিশ প্রহরায় কেন্দ্রে নিয়ে যাবেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বা ট্যাগ অফিসারের উপস্থিতি ছাড়া প্রশ্ন বের করা যাবে না বা বহন করা যাবে না।

*ট্রেজারি বা থানা বা নিরাপত্তা হেফাজত থেকে পরীক্ষার কেন্দ্রে বহুমুখী নির্বাচনী প্রশ্নসহ রচনামূলক বা সৃজনশীলের সব সেট প্রশ্নই নিতে হবে। সেট কোড পরীক্ষা শুরুর ২৫ মিনিট আগে জানানো হবে। সে অনুযায়ী নির্ধারিত সেট কোডে পরীক্ষা গ্রহণ করতে হবে। কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ট্যাগ অফিসার), কেন্দ্রসচিব এবং পুলিশ কর্মকর্তার উপস্থিতি ও স্বাক্ষরে বিধি অনুযায়ী প্রশ্নপত্রের প্যাকেট খুলে ফেলতে হবে।
*পরীক্ষা চলাকালে এবং পরীক্ষা অনুষ্ঠানের আগে বা পরে পরীক্ষা কেন্দ্রে পরীক্ষার্থী ও পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট কাজে নিয়োজিত ব্যক্তিরা ছাড়া অন্যদের প্রবেশ সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ থাকবে। এ সময়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশকারী অননুমোদিত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

*অনিবার্য কারণে কোনো পরীক্ষা বিলম্বে শুরু করতে হলে যত মিনিট পরে পরীক্ষা শুরু হবে, পরীক্ষার্থীদের সে সময় থেকে যথারীতি প্রশ্নপত্রে উল্লেখিত নির্ধারিত সময় দিতে হবে।

*পরীক্ষা কেন্দ্রে ও প্রশ্ন পরিবহনে দায়িত্বপ্রাপ্ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সতর্কতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন।

*প্রশ্নপত্র ফাঁস কিংবা পরীক্ষার্থীদের কাছে উত্তর সরবরাহে জড়িত ব্যক্তিবর্গের বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও জেলা প্রশাসন কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশ্নপত্র ফাঁসসংক্রান্ত গুজব কিংবা এ কাজে তৎপর চক্রগুলোর কার্যক্রমের বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগ নজরদারি জোরদার করবে।

*কোভিড-১৯ অতিমারির কারণে শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও পরীক্ষা সংশ্লিষ্ট সবাইকে যথাযথভাবে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে পরীক্ষা অনুষ্ঠান নিশ্চিত করতে হবে। এ জন্য একজনের বেশি অভিভাবক পরীক্ষার্থীর সঙ্গে আসতে পারবেন না। তা ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর থেকে ৫ সেপ্টেম্বর জারি করা গাইডলাইনের নির্দেশনা পালন করতে হবে।

শিক্ষার্থীর প্রধান কাজ:
যে প্রধান কজে সফল সে সবার কাছেই পুরস্কৃত। পৃথিবীতে বিদ্যাই হচ্ছে একান্ত নিজের ধন। এটি কেউ কেড়ে নিতে পারে না, বিলিয়ে দিলে কমে না, পালিয়ে চলে যায় না। সুশিক্ষা অর্জন ও প্রয়োগের মাধ্যমে মানুষ লাভ করতে পারে ইহ এবং পরকালের পরম শান্তি। তাই লেখাপড়া থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়া চলবে না কখনো। বিশ্বজোড়া পাঠশালা মোর সবার আমি ছাত্র- এই ব্রত নিয়ে সুশিক্ষা অর্জনে থকতে হবে আমরণ আন্তরিক।

মনে রাখতে হবে ‘বিশ্রাম কাজেই অঙ্গ এক সাথে গাঁথা, নয়নের অঙ্গ যেমন নয়নের পাতা’। কাজের গতি ও উদ্যম বৃদ্ধির জন্য বিশ্রাম ও বিনোদন অপরিহার্য। আর এ সময়েই তুমি পড়ে বা শুনে নিতে পারো তোমাদের গুরুজনদের কিছু জরুরি উপদেশ। করে নিতে পারো উপাসনা। পূর্ণ করে নিতে পারো ঘুম। নিশ্চিত করতে পারো মন ও দেহের সুস্থতা। সে জন্যই থাকা চাই একটি কার্যকর কর্মপরিকল্পনা বা রুটিন এবং সে মত সম্পাদন করা চাই দৈনন্দিন লেখাপড়া, নাওয়া-খাওয়া, উপাসনা, নিদ্রা, বিশ্রাম, বিনোদন। অবশ্য সারা বৎসর যারা নিয়মিত ক্লাস করেছো এবং প্রিয় শিক্ষক ও অভিভাবকগণের পরামর্শ অনুসারে মনোযোগ দিয়ে লেখাপড়া করেছো তাদের পরীক্ষা নিয়ে সামান্য চিন্তা থাকলেও দুশ্চিন্তার তেমন কোন কারণ নেই। অব্যাহত প্রচেষ্টার সুফল অভিসম্ভাব্য।

আর হ্যাঁ। পরীক্ষার আগে খুঁজতে যেওনা পরীক্ষার প্রশ্ন। এটি অন্যায় ও অনৈতিক। এতে বিনষ্ট হবে তোমার অর্জিত প্রস্তুতি, সৎ সাহস ও নীতি-নৈতিকতা। পরীক্ষার আগে পেয়ে যাওয়া প্রশ্ন যদি পরীক্ষায় না থাকে তো সেটি হবে তোমার পরীক্ষা খারপ হওয়ার প্রধান কারণ। কেননা, অসৎ উদ্দেশ্য সংগ্রহ করা এই প্রশ্নই ভুলিয়ে দিবে তোমার দুই বছরের কষ্টার্জিত প্রস্তুতি। নিশ্চিত ধ্বস নেমে আসবে তোমার পরীক্ষার ফলাফলে। ভেঙে চূড়মার হয়ে যাবে তোমার সকল উচ্চাশা। তুমি পরিণত হবে সকলের অবহেলার পাত্রে। অপরদিকে অসৎ উদ্দেশ্যে সংগ্রহ করা কোন প্রশ্ন যদি পরীক্ষায় থাকে এবং তুমি সেই অবৈধ সুবিধা নিয়ে পরীক্ষা দিয়ে ভাল ফলাফল করো, তো সেই ভাল ফলাফল তোমার না। এতে আজীবন নিজের কাছে ছোট থাকবে তুমি। হারাবে মনের বল ও সৎ সাহস। বাড়তে থাকবে তোমার অযোগ্যতা। নিজের সন্তানকেও দিতে পারবে না সৎ উপদেশ। অবশ্যই কোন এক সময় তোমার মনে জেগে উঠবে এই পাপ/অপরাধ বোধ। তখন আর কোথাও ফিরিয়ে দিতে পারবে না অবৈধভাবে অর্জিত তথাকথিত ভাল রেজাল্ট। সেই রেজাল্ট দিয়ে যে কর্ম করবে, বৈধ হবে না সেই কর্মের উপার্জন। মহান সৃষ্টিকর্তাও শুনবেন না তোমার প্রার্থনা। সুতরাং কোনভাবেই মাথায় আনবে না প্রশ্ন ফাঁস করে বা নকল করে পরীক্ষায় ভাল করার অনৈতিক চিন্তা।

শুধু পড়লেই চলবে না। লিখতেও হবে বারবার। মনে রেখো, একবার লেখা দশবার পড়ার চেয়ে বেশি ফলপ্রসূ। পড়ে জেনে নাও বিস্তারিত। মুখস্ত করার চেয়ে উত্তম নিজের মত করে লিখতে শিখা। লিখ। মিলিয়ে দেখ। ভুল শুধরে নাও। আবার লিখ। আবার মিলিয়ে দেখ। ভাবো। আবার লেখ। দেখবে বইয়ের মতো হুবহু না হলেও সঠিক হয়েছে তোমার উত্তর। এতে লেখাপড়ায় পাবে অনেক আনন্দ আর পরীক্ষা নিশ্চিত পাবে অধিক নম্বর। আবারো বলছি, বর্তমান পরীক্ষা ব্যবস্থায় বাছাই করা প্রশ্নের তৈরি করা উত্তর মুখস্ত করে বা নকল করে ভালো ফলাফল করা সম্ভব নয়। সকল পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের জন্য সচ্ছ ভাবে আত্মস্থ থাকা চাই নির্ধারিত চ্যাপ্টারের খুঁটিনাটি সবকিছু এবং সেই সাথে থাকা চাই যে কোন প্রশ্নের সঠিক উত্তর নির্ভুল বানানে লেখার নিজস্ব ক্ষমতা। আশাকরি সবাই লিখতে পারবে সকল প্রয়োজনীয় প্রশ্নের উত্তর এবং ভালো হবে তোমাদের পরীক্ষার ফলাফল।

Print Friendly, PDF & Email