ঝালকাঠিতে মিনি পতিতালয়ের সন্ধান

দশম শ্রেণির ছাত্রীসহ আটক ৪

প্রকাশিত: ২:১২ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০১৮ | আপডেট: ২:১২:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৫, ২০১৮
ঝালকাঠিতে মিনি পতিতালয়ের সন্ধান

ঝালকাঠিতে কথিত মিনি পতিতালয়ের সন্ধান পেয়ে ডিবির অভিযানে খদ্দেরসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। এসময় রাজাপুর উপজেলার নারিকেল বাড়িয়া গ্রামের এক দশম শ্রেণির ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়েছে। কথিত পতিতা লিপি ওই ছাত্রীকে বাসায় আটকে রেখে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করার অভিযোগ ছাত্রীর। এঘটনায় ঝালকাঠি থানায় ডিবি পুলিশ বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনসহ সংশ্লিষ্ট ধারায় মামলা দায়ের করেছে।
ডিবির পরিদর্শক কামরুজ্জামান মিয়া জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে এসআই শাহিনসহ ডিবি পুলিশের একটি দল চিহ্নিত দেহ ও মাদক ব্যবসায়ী লিপির বাসায় অভিযান চালায়। অভিযানে খদ্দের সহ রাজাপুর উপজেলার নারিকেলবাড়িয়া এলাকার দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে উদ্ধার করে। খদ্দের শহরের বাউকাঠি এলাকার আব্দুল ওহেদ’র পুত্র মাইনুল ইসলাম (২২) পিপলিতা এলাকার খাদেম আলী সিকদার’র পুত্র আব্দুস সালাম (২২) ও নতুন কলেজ রোডের কথিত পতিতা সরদার লিপি এবং তার স্বামী আরিফ হোসেনকে আটক করা হয়। এদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ওই ছাত্রীকে ফুসলিয়ে বাসায় আটক রেখে দেহ ব্যবসায় বাধ্য করে তারা। আটক লিপি ও তার স্বামীর বিরুদ্ধে ঝালকাঠি শহরে মাদক ব্যবসা ও দেহ ব্যবসাসহ অনৈতিক কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ আছে বলেও কামরুজ্জামান জানান।
ঝালকাঠি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতৃা মো: তাজুল ইসলাম জানান, আটক ৪জনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা (নং ২৩ তারিখ ২৪ /০১/২০১৮ইং) রজু হয়েছে। উদ্ধার হওয়া ছাত্রীকে আইনি প্রক্রিয়া শেষে বুধবার বিকেলে তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।