নিজের কিডনি দিয়ে ভাইয়ের জীবন বাঁ’চালেন ছয়ফুল হোসেন

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:৫৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১ | আপডেট: ৮:৫৩:অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় নিজের জীবনের কথা চিন্তা না করেই বড় ভাইকে একটি কিডনি দিয়েছেন ছয়ফুল হোসেন (২৮) নামের এক যুবক। এতে ভাইয়ের প্রতি ভালোবাসার বিরল এক দৃষ্টান্ত গড়ে প্রসংশায় ভাসছেন তিনি। ছোট ভাইয়ের দেওয়া কিডনি পেয়ে নতুন জীবন পেয়েছেন বড় ভাই বদরুল হোসেন (৩৩)।

গতকাল শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ঢাকার শ্যামলীর সিকেডি অ্যান্ড ইউরোলজি হাসপাতা’লে ছয়ফুল হোসেনের দেওয়া কিডনি বদরুল হোসেনের দেহে সফলভাবে প্রতিস্থাপন করেন চিকিৎসকরা।

জানা গেছে, বর্তমানে তারা দুজনেই সুস্থ আছেন। তারা দুজন বড়লেখা উপজে’লার দক্ষিণভাগ উত্তর (কাঠালতলী) ইউনিয়নের দক্ষিণ মুছেগুল গ্রামের আব্দুল হামিদের ছে’লে।

এদিকে, বদরুলের চিকিৎসার ব্যয়ভা’র সংগ্রহের পেছনে সবচেয়ে বেশি অবদান রেখেছে শিক্ষা ও সেবা ফাউন্ডেশন কাঠালতলী। মাত্র দেড়মাসে বদরুলের চিকিৎসার জন্য তহবিল গঠন করে প্রায় ৩৫ লাখ টাকা সংগ্রহ করে সংগঠনটি। এর মধ্যে প্রায় ২৭ লাখ টাকা বদরুলের চিকিৎসার পেছনে ব্যয় হয়েছে।

বদরুল ও ছয়ফুলের বড়ভাই শিক্ষক মিলাদ হোসেন শনিবার বিকেলে বলেন, আমা’র ছোট ভাই ছয়ফুলের দেওয়া কিডনি বদরুলের দেহে সফলভাবে প্রতিস্থাপন করেছেন চিকিৎসকরা। তারা দুজনেই এখন সুস্থ রয়েছেন। তিনি বদরুলের পাশে দাঁড়ানোর জন্য শিক্ষা ও সেবা ফাউন্ডেশন কাঠালতলী`র পাশাপাশি সবার কাছে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

শিক্ষা ও সেবা ফাউন্ডেশন কাঠালতলী’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ছয়ফুল হক শনিবার বিকালে বলেন, বদরুলের চিকিৎসার জন্য প্রথমে ২৫ লাখ টাকার প্রয়োজন ছিল। আম’রা তার চিকিৎসার্থে তহবিল গঠন করে টাকা সংগ্রহ শুরু করি। দেড়মাসে প্রায় ৩৫ লাখ টাকা তহিবেল জমা হয়। বদরুল কয়েক মাস অ’সুস্থ থাকায় কিডনি প্রতিস্থাপন করতে দেরি হয়েছে। তার চিকিৎসায় প্রায় ২৭ লাখ টাকা খরছ হয়েছে। আর তার ছোটভাই ছয়ফুল তাকে একটি কিডনি দিয়েছেন। ছয়ফুল তার ভাই বদরুলকে কিডনি দিয়ে ভাইয়ের প্রতি ভাইয়ের ভালোবাসার বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

জানা গেছে, ২০২০ সালের জুলাই মাসে বদরুলের দেহে কিডনি প্রতিস্থাপনের কথা থাকলেও তা আর হয়ে ওঠেনি। কারণ এর মধ্যে বদরুলের শরীরে বাসা বাঁধে প্রা’ণঘাতী হেপাটাইটিস-সি ও যক্ষ্মা রোগ। এদিকে প্রায় ১৪ মাস পর সুস্থ হয়ে ওঠেন বদরুল। এরপর গত শুক্রবার ঢাকার শ্যামলীর সিকেডি অ্যান্ড ইউরোলজি হাসপাতা’লে কিডনি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. কা’ম’রুল ই’স’লা’মের তত্ত্বাবধানে ছয়ফুল হোসেনের দেওয়া কিডনি বদরুল হোসেনের দেহে সফলভাবে প্রতিস্থাপন করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email