ষড়যন্ত্র, ষড়যন্ত্র, ষড়যন্ত্র: মেয়র সাদিক

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ২:৪১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০২১ | আপডেট: ২:৪১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০২১

বরিশাল: বরিশাল সিটি করপোরেশনের (বিসিসি) মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগ কেউ করতে দেবে না, প্রশাসনের লোকজন সেই প্রক্রিয়া নিয়েছে। ’ সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।
ওই ভিডিওতে তাকে এ কথা বলতে দেখা যায়।

তিনি বলেন, ‘আমি তো আগেই বলেছি, ইঙ্গিত দিয়েছি যে এ ধরনের ঘটনা ঘটাতে যাচ্ছে তারা। গুলি হইছে, আমাদের নেতা-কর্মীরা আহত হইছে। তাদের চিকিৎসা করাতে ঢাকা শহরে যাইতে দিচ্ছে না। মানে কোন পরিস্থিতিতে আছি, এটা কেমন কথা। যারা আহত হইছে তাদের গ্রেফতার করে রাখছে। আমরা পুরো ঘটনার সঠিক তদন্ত চাই। আমি অপরাধী হয়ে থাকলে, আমাদের নেতা-কর্মীরা অপরাধী হয়ে থাকলে এখানে থাকার কোনো অধিকার আমার নেই। আমি রেজিগনেশন লেটার দিয়ে দেব। অপমান-অপদস্তের তো একটা সীমা আছে। ’

ওই ভিডিওতে মেয়র আরও বলেন, ‘আমাকে তো অপদস্ত করে না, করে আওয়ামী লীগকে, করে সরকারকে। আমি প্রথম থেকেই বলছি এটি ষড়যন্ত্র, ষড়যন্ত্র, ষড়যন্ত্র। আমি সিটি করপোরেশনের একজন মেয়র। কিন্তু সিভিল প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন মিলে কী করছে বুঝলাম না। মেয়র মানে কী? এটা মেয়রের ক্ষমতার কোনো বিষয়ও না। তারা গুলি করলে আমরা পাল্টা গুলি করবো এটাই মনে হয় চাইছিল। অথবা তারা যা করছে তাতে আমরা কেন মিছিল করি না, প্রতিবাদ সভা করি না এটাও চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে তাদের। ’

তিনি বলেন, ‘এই সরকার তো আমাদের সরকার, নৌকা মার্কার সরকার, জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার। আমি এখানে নাড়া দিলে পরে ক্ষতি ওনাদের হবে না, ক্ষতি হবে আমার দলের। দলের ক্ষতি করার আগে আমার সরাসরি রিজাইন দিয়ে চলে যাওয়া ভালো। ’

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এ কে এম জাহাঙ্গীর  বলেন, ওই রাতে ইউএনওর বাসভবনে কেউ হামলা করেনি। রাতে বিভাগীয় প্রশাসন ঘটনাস্থল পরিদর্শনের সময় আমিও ছিলাম। হামলা হলে ইউএনওর বাসভবনের একটি জানালার গ্লাসও ভাঙতো না? আবার যে গেট ভাঙার কথা হচ্ছে সেটি কোথায়? সব গেটই তো ঠিকই দেখেছি। ইউএনও নিজেই এর সঙ্গে জড়িয়েছেন। নিরাপত্তাকর্মীদের অস্ত্র ব্যবহার করে নির্বিচারে গুলি চালিয়েছেন।

– সূত্র: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

Print Friendly, PDF & Email