মাদারীপুরে পালিত হচ্ছে কঠোর লকডাউন

নাজমুল হক নাজমুল হক

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১০:৫৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১, ২০২১ | আপডেট: ১০:৫৫:অপরাহ্ণ, জুলাই ১, ২০২১

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পালিত হচ্ছে ৭দিনের কঠোর লকডাউন। জরুরী সেবা ছাড়া বন্ধ রয়েছে সকল প্রকার বিপনী বিতান, দোকানপাট, স্বাস্থবিধি মেনে সীমিত আকারে দু‘একটি ছোট কলকারখানা চালু রয়েছে। সেখানে কোনো ধরণের জনসাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ। রাস্তার মোড়ে মোড়ে এবং শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী তৎপর রয়েছেন। একাধিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পরিচালিত হচ্ছে ভ্রাম্যমান আদালত। সকাল থেকে বৃষ্টিতে ভিজে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাইফুদ্দিন গিয়াসকে জেলার প্রধান বাণিজ্যিক কেন্দ্র পুরান বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাতে দেখা গেছে। শুধু তাই নয় ৭দিনের কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে বৃষ্টির মধ্যে দাঁড়িয়ে ছাতা মাথায় পুলিশসহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী মাঠে সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। কঠোর বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে প্রশাসনের পদক্ষেপ ছিলো চোখে পড়ার মতো।
মহাসড়ক, আঞ্চলিক সড়ক, সংযোগ সড়ক ও শহরের মধ্যে কোনো প্রকার যানবাহন চলাচল করতে দেখা যায়নি। দু‘একটি রিকসা চলাচল করেছে নিত্যপণ্যের বাজার বাড়ি বাড়ি পৌছে দিতে। সরকারী প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ঔষধের দোকান যথারীতি খোলা ছিলো। তবে অন্যান্য দিনের তুলনায় বেচাকেনা একেবারেই কম ছিলো। শহরের নিরাময় প্রাইভেট হাসপাতাল সংলগ্ন শরিফ ফার্মার মালিক খলিলুর রহমান বলেন, ‘সারা দিন বসে বসে অলস সময় পার করছি। কঠোর লকডাউনে সব ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ। দূর-দূরান্ত থেকে কোনো রোগী আসতে পারছে না। রোগী না আসতে পারলে আমাদের ঔষধপত্র বিক্রি হবে কিভাবে। সারা জেলার একই অবস্থা। তবুও কঠোর লকডাউনে মানুষ ঘরে থাকুক, করোনা সংক্রমন রোধে এটাই চাই।’
এদিকে একই চিত্র রাজৈর উপজেলা সদরসহ বৃহত্তর বন্দর টেকেরহাটের। পাইকারী-খুচরা সব ধরণের ছোট-বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সকাল থেকে সারা দিন বৃষ্টি হচ্ছে। তাই খুব জরুরী প্রয়োজন না হলে কেউ ঘর থেকে বের হচ্ছে না। সকালের দিকে কাঁচাবাজার খোলা থাকলেও দুপুরের পর সবই বন্ধ হয়ে যায়। রাস্তা-ঘাট একেবারে ফাঁকা, সর্বত্র সুনসান নীরবতা বিরাজ করছে। জেলার কালকিনির অবস্থা একই রকম। অন্যদিকে শিবচর আরো কঠোর লকডাউন চলছে। শিমুলিয়া বাংলাবাজার নৌপথে কোনো ভিড় বা ব্যস্ততা নেই।

জিএম/হক

Print Friendly, PDF & Email