জগন্নাথপুরে মাদ্রাসা ছাত্রীর দুই কিডনী বিকল: সাহায্যের জন্য আবেদন

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:১৬ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২১ | আপডেট: ৭:১৬:অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২১

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের খালিশাপাঁড়া গ্রামের এক মাদ্রাসার ছাত্রী দুই বছর ধরে কিডনী বিকল হয়ে আছে। অসহায় হয়ে মৃত্যুযন্ত্রনায় দিন, রাত পার করছে। চিকিৎসা করাতে সাহায্যের আবেদন করেছে পরিবার।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খালিশাপাঁড়া গ্রামের আব্দুল মইনের পরিবারে স্ত্রী, দুই ছেলে ও একমাত্র মেয়ে নিয়ে সুখে শান্তিতে বসবাস করছিলেন। গত দুই বছর পূর্বে একমাত্র মেয়ে মাদ্রাসা ছাত্রী তামান্না আক্তরের শরিরে কিডনী রোগ দেখা দেয়। মেয়ের কিডনী রোগ সনাক্ত হওয়ার পর প্রায় ২ বছরে অসহায় কৃষক মইন মিয়ার জীবনের অর্জন করা সকল সম্পদ ডাক্তারীর জন্য ব্যয় করে ক্লান্ত হয়ে পড়েছেন। মেয়ের ডাক্তারীর জন্য বিভিন্ন স্থানে সাহায্যে সাহায্যের আবেদন করে অল্প কিছু লোকের সাহায্যে ডাক্তরী করে এখন আর ডাক্তারের খরচ বহন করতে পারছেন না। সমাজের বৃত্তবানদের প্রতি সাহায্যের আবেদন করেন পরিবারটি। মেয়েকে বাঁচিয়ে রাখতে প্রত্যেক মাসে ডায়লাইসিস করতে ৫০ হাজার টাকা খরচ হবে।

এ ব্যাপারে অসহায় কৃষক মইন মিয়া জানান, আমার দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে সুখে শান্তিতে বসবাস করে আসছিলাম। হঠাৎ করে আমার একমাত্র মেয়ের কিডনী রোগ দেখা দেয়। বিভিন্ন স্থানে চিকিৎসা করিয়ে শেষ পর্যন্ত অসহায় হয়ে সমাজের বৃত্তবান লোকদের প্রতি সাহায্যের আবেদন করে বলেন, আমি অসহায় হয়ে মেয়েকে বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন করতেছি। যদি কোন হৃদয়বান ব্যক্তি সাহায্য করতে চান আমার ব্যক্তিগত বিকাশ পারসোনাল ০১৭১৫-৩৭২৪৬৯ এই নাম্বারে অনুদান দেওয়ার অনুরোধ করা হল। প্রয়োজনে আমার ছেলের এই ০১৭৬৮৮১২৩৮৯ নাম্বারে যোগাযোগ করবেন।##

Print Friendly, PDF & Email