রানীগঞ্জ বাজারে ভোররাতে কাঁচামালের দোকানে অগ্নিকান্ডে প্রায় দেড় লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৩:৩৫ অপরাহ্ণ, জুন ১৯, ২০২১ | আপডেট: ৩:৩৫:অপরাহ্ণ, জুন ১৯, ২০২১

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন রানীগঞ্জ বাজারে শুক্রবার ভোর রাতে কাঁচামালের দোকানে অগ্নিকান্ডে প্রায় দেড় লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। অগ্নিকান্ডে খবর পেয়ে জগন্নাথপুর থানার পুলিশ ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে গেছে।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার রানীগঞ্জ বাজারে বাজার বার হওয়ায় অন্য দিনের তুলনায় ব্যবসায়ীরা বেশি মাল এনে বিক্রয় করে বাজারের গলিতে প্যাকেট করে রেখে বাড়ীতে চলে যান। এর মধ্যে পাইলগাঁও ইউনিয়নের আব্দুল হাসিমের ছেলে মহিউদ্দিন বুদ্ধি মিয়া দোকান প্রতিদিনের ন্যায় দোকানের মাল রেখে বাড়ীতে চলে যান। কাঁচা মাল হাটে প্রায় ২০ থেকে ২৫টি দোকান মধ্য খানে কে বা কারা আগুন লাগিয়ে দেয়। ভোর রাতে আগুনের লেলিহা শিখা দেখে বাজারের ব্যবসায়ীরা এগিয়ে এসে সকলের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। এর মধ্যে মহিউদ্দিন বুদ্ধি মিয়া দোকানের সকল মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। শুক্রবার সকালে রানীগঞ্জ বাজার সেক্রেটারী আজমল হোসেন মিটু সহ বাজারের ব্যবসায়ীরা পরিদর্শন করে যান।

এ ব্যাপারে মহিউদ্দিন বুদ্ধি মিয়া জানান, আমি প্রত্যেক দিনের  ন্যায় দোকানে মাল রেখে গিয়েছিলাম। ভোর রাতে কে বা কারা আমার দোকানে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। আমি সিওর আমার ক্ষতি করার উদ্যোশে এ কাজ করা হয়েছে। বাজারের গলিতে এত দোকান থাকার পরও আমার দোকান টার্গেট করে আগুন লাগানো হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।

এ ব্যাপারে জগন্নাথপুর থানার এএসআই ভোলানাথ জানান, আগুন লাগার ঘটনা শুনার পর সাথে সাথে একদল পুলিশ নিয়ে আগুন লাগার স্থান পরিদর্শন করে আসি। আমরা খোঁজ খবর নিয়ে দেখতেছি।##

Print Friendly, PDF & Email