কালকিনিতে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের ৭ জন আহত

নাজমুল হক নাজমুল হক

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১২:০৪ পূর্বাহ্ণ, মে ১৯, ২০২১ | আপডেট: ১২:০৪:পূর্বাহ্ণ, মে ১৯, ২০২১

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

কালকিনিতে নতুন ঘর তৈরি করতে গিয়ে পূর্ব শুত্রুতার জেরে অতর্কিত হামালা চালিয়ে দুই নারীসহ ঘটনাস্থলে আহত হয়েছে একই পরিবারের ৭জন। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলাবার দুপুরে মাদারীপুুর জেলার কালকিনি উপজেলার আলিনগর ইউনিয়নের টুমচর এলাকায়। আহত ৭জনই মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ভুক্তভোগী ও পুলিশ সুত্রে জানা যায়, একই এলাকার ইলিয়াছ ও তোতা হাওলাদারের সাথে দেলোয়ার হাওলাদারের দীর্ঘদিন শুত্রুতা ছিল। এরই জেরে মঙ্গলবার দেলোয়ার নিজ বাড়ীতে নিজ জমিতে নতুন ঘর নির্মান করতে গেলে পূর্বশুত্রুতার জেরে ইলিয়াছ, তোতাসহ প্রায় ১০-১২জন মিলে অঅতর্কিত হামালা চালিয়ে দেলোয়ারসহ তার পরিবারের ৭জনকে কুপিয়ে আহত করে। আহতরা হলেন মৃতু বোরহান হাওলাদারের ছেলে দেলোয়ার হাওলাদার(৪২), দোলোয়ার হাওলাদারের ছেলে শিপন হাওলাদার(৩৪), টুটুল হাওলাদার(৩১), টিপু হাওলাদার(২৮), টুকু হাওলাদার(২৬), এবং শিপনের স্ত্রী জয়নব বেগম (২৫), টুকুর স্ত্রী কুলসুম বেগম(২০)। আহত ৭ জনকেই মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

দোলোয়ার হাওলাদারের আত্মীয় রেজাউল হাওলাদার বলেন, হঠাৎ করেই ইলিয়াছসহ ১০থেকে ১২ জন দেশী রামদা দা নিয়ে আমার ভাই ও ভাগ্নাদের উপর হামলা চালিয়ে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। আমরা চিৎকার শুনে এসে সবাইকে আহত অবস্থায় মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসি। সবারই মাথায় আঘাত রয়েছে। আমরা পুলিশকে জানিয়েছি এবং মামলা করবো।’

অভিযুক্ত ইলিয়াছ হাওলাদার জানান, ঘরতোলা নিয়ে দুপক্ষের সংর্ঘষ হয়েছে, এটা আমাদের পারিবারিক জমি নিয়ে সমস্যা। আমাদের একজন আহত হয়েছে।

কালকিনি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইসতিয়াক আসফাক রাসেল জানান, আমরা ঘটনা শুনেছি আহতদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। মামলা করলে আমরা তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

জিএম/হক

Print Friendly, PDF & Email