রাজাপুরে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১জন গুলিবিদ্ধ

প্রকাশিত: ৩:২৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২১ | আপডেট: ৫:৪৯:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২১

ঝালকাঠির রাজাপুরে বিরোধীয় জমির সীমানা প্রাচীর নির্মাণে বাধা দেয়াকে কেন্দ্র করে দু’গ্রæপের সংঘর্ষে আব্দুল করিম বাবুল মৃধা (৫৭) নামে এক ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার মেডিকেল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আহতকে উদ্ধার করে রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ আব্দুল করিম বাবুল মৃধা সাংগর গ্রামের নুরুল হক মৃধার ছেলে ও মেডিকেল মোড় এলাকায় বরিশাল-খুলনা বাস কাউন্টার পরিচালনা করেন।
এ ঘটনার পর দুপুরে অভিযুক্ত উপজেলা বিএনপির সহ সভাপতি ও আলহাজ্ব লালমোন হামিদ মহিলা কলেজের বাংলা প্রভাষক মাহফুজুর রহমানের বাসা থেকে রাজাপুর থানা পুলিশ লাইসেন্সধারী একনালা বন্দুক, এক রাউন্ড তাজাগুলি, ১টি চাকু ও ১টি দেশীয় অস্ত্র (গুপ্তি) উদ্ধার করে।
গুলিবিদ্ধ আব্দুল করিম বাবুল মৃধার ছোট ভাই বরকত মৃধা জানান, দীর্ঘদিন ধরে প্রতিপক্ষ মাহফুজুর রহমানের সাথে জমি নিয়ে বাবুল মৃধার বিরোধ চলে আসছিলো। শনিবার ওই বিরোধীয় জমিতে জোরপূর্বক সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজ শুরু করলে থানায় অভিযোগ দেয়ার পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করে দেয়। কিন্তু রোববার সকালে পুলিশি নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে আবার কাজ শুরু করলে বাবুল মৃধা ও তার ছোট ভাই বরকত বাধা দেয়। এ সময় বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে ঘরের সামনের কক্ষের জানালা দিয়ে বাবুল মৃধাকে লক্ষ করে গুলি ছোঁড়েনমাহফুজুর রহমান। এতে তার হাত ও পেটে একাধিক জখম হয়।
রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে কর্মরত মেডিকেল সহকারী কনক প্রভা সরকার জানান, তার হাতে ও পেটে গুলিবিদ্ধ হয়ে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হওয়ায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল প্রেরণ করা হয়েছে।
রাজাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম জানান, ঘটনার পর অভিযান চালিয়ে লাইসেন্সধারী একনালা বন্দুক, এক রাউন্ড তাজাগুলি, ১টি চাকু ও ১টি দেশীয় অস্ত্র (গুপ্তি) উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। তবে অভিযুক্ত মাহফুজকে আটক করা সম্ভব হয়নি।