মিতালী’কে বাড়ি পৌঁছে দিলো বাংলাদেশ রেলওয়ে

রংপুর ব্যুরো

প্রকাশিত: ৫:৩৫ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২১ | আপডেট: ৫:৩৫:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৮, ২০২১

দিনাজপুর প্রতিনিধি- চলন্ত ট্রেনে জন্ম নেওয়া সেই ‘মিতালী’ ও তার বাবা-মাকে বিশেষ ট্রেনের মাধ্যমে বাড়িতে পৌঁছে দিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। বুধবার দিনাজপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে গ্যাংকার ট্রেনের মাধ্যমে শিশু মিতালী ও তার পরিবারকে বাড়ি পাঠানো হয়।

এসময় বাংলাদেশ রেলওয়ে লালমনিরহাট বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শাহ সুফী নুর মোহাম্মদ ও দিনাজপুর রেল স্টেশনের সুপার জিয়াউর রহমানসহ রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দিনাজপুর রেলওয়ে স্টেশন সুপারিনটেনডেন্ট এবিএম জিয়াউর রহমান জানান, রেলওয়ের বাংলাদেশ-ভারতে চলাচলকারী একটি ট্রেনের নাম অনুযায়ী নবজাতকের নাম রাখা হয়েছে ‘মিতালী’। আমরাও আনন্দিত যে আমাদের নামকরণের সঙ্গে শিশুটির পরিবার একমত। রেলওয়ের একটি গ্যাংকার ট্রেনে শিশু মিতালি ও তার পরিবার সদস্যদের তার বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। গ্যাংকারটি রেললাইন রক্ষণাবেক্ষণ কাজে নিয়োজিত ছিল।

উল্লেখ্য, গত ৩ এপ্রিল শনিবার সকালে সন্তান সম্ভবা মুক্তি পারভীন স্বামীসহ ঢাকাগামী দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনে করে চিকিৎসার জন্য দিনাজপুরে আসছিলেন। হঠাৎ ট্রেনেই প্রসব বেদনা ওঠে তার এবং নারী যাত্রীদের সহায়তায় চলন্ত ট্রেনেই সন্তান প্রসব হয়। ট্রেনটি দিনাজপুর স্টেশনে এলে ফুল না পড়ায় মা ও সন্তানকে পৃথক করা সম্ভব হচ্ছিল না। সঙ্গে সঙ্গে দিনাজপুর রেলওয়ে স্টেশন সুপারিনটেনডেন্ট এবিএম জিয়াউর রহমান ঘোষণা দেন মা ও শিশুকে নিরাপদে হাসপাতালে না নেওয়া পর্যন্ত ট্রেন স্টেশন ছাড়বে না। এরপর তারা একজন ধাত্রীকে ডেকে জরুরি ব্যবস্থা নিয়ে মা ও শিশুকে অ্যাম্বুলেন্সে করে হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

বিষয়টি রেলওয়ের লালমনিরহাট বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শাহ সুফী নুর মোহাম্মদ অবগত হয়ে স্টেশন কর্তৃপক্ষের তৎপরতার প্রশংসা করেন এবং রেলের একটি ট্রেনের নামে নবজাতকের নাম ‘মিতালী’ রাখার প্রস্তাব দেন। শিশুটির পরিবার খুশি হয়ে এই নাম গ্রহণ করে। আজ শিশুটিকে বিদায় জানাতে ও নিরাপদে বাড়ি পৌঁছে দিতে লালমনিরহাট থেকে বিভাগীয় ব্যবস্থাপক শাহ সুফী নুর মোহাম্মদ এসেছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email