ধর্ষণের শিকাড় নাবালিকা মেয়ে অন্তঃসত্ত্বা, থানায় মামলা

নাজমুল হক নাজমুল হক

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১০:১১ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৯, ২০২১ | আপডেট: ১০:১১:অপরাহ্ণ, মার্চ ২৯, ২০২১

মাদারীপুর সদর থানার কলাগাছিয়া এলাকায় রান্না করার কথা বলে নাবালিকা এক মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় শুক্রবার মাদারীপুর সদর মডেল থানায় একটা ধর্ষণ মামলা দ্বায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, কলাগাছিয়া নতুন প্রনবমঠের মন্টু মহারাজের সেবায়েত হিসেবে বসবাস করে খাগড়াছড়ি জেলার উপেন্দ্র ত্রিপুরার ছেলে টামেন ত্রিপুরা (২০)। নাবালিকা মেয়ের বাড়ি মঠের পাশে হওয়ার সুবাদে মন্টু মহারাজসহ তার সেবায়েত টামেন ত্রিপুরার ওই বাসায় যাতায়াত ছিলো। মঠের রান্না করা মহিলা ছুটিতে যাওয়ায় নাবালিকা ওই মেয়েকে দিয়ে কয়েক দিনের জন্য রান্নার কাজ করানো হয়। ঘটনার দিন গত ০৫/০২/২০২১ তারিখ দুপুরে ওই নাবালিকা মেয়ে মঠে রান্না করতে গেলে টামেন ত্রিপুরা ওই মেয়েকে তার শোবার ঘরে ডেকে নিয়ে জোড় করে ধর্ষণ করে। এছাড়াও কাউকে কিছু বললে প্রানে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। ওই মেয়ে বাড়িতে এসে তার মাকে সব বলে দেয়। মেয়ের মা মঠের দায়িত্বে থাকা মন্টু মহারাজ ও এলাকার ইউপি সদস্য অমল ভক্তকে বিষয়টি জানায়। এ ব্যাপারে কোন প্রতিকার না পেয়ে গতকাল শুক্রবার মেয়ের মা বাদি হয়ে সদর থানায় এজাহার দ্বায়ের করেন।

ধর্ষণের শিকাড় ওই মেয়ের মা বলেন, টামেন ত্রিপুরা আমার মেয়েকে ধর্ষণ করেছে যার কারনে আমার মেয়ে আজ অন্তঃসত্ত্বা। আমি ওর বিচার চাই।

শনিবার রাতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আব্দুল হান্নান (প্রশাসন ও অপরাধ) বলেন, এই ঘটনায় একজনকে আসামী করে সদর মডেল থানায় একটা মামলা হয়েছে। আসামীকে ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

জিএম/হক