মাদারীপুরে ভুল চিকিৎসার অভিযোগে হাসপাতালের মালিক আটক

নাজমুল হক নাজমুল হক

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১১:২৮ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৪, ২০২১ | আপডেট: ১১:২৮:অপরাহ্ণ, মার্চ ২৪, ২০২১

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

মাদারীপুরে ভুল চিকিৎসার অভিযোগে প্রাইভেট হাসপাতালের মালিককে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও এক মাসের কারাদণ্ড দিয়ে জেলে প্রেরণ করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার দুপুরে পানিছত্র এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, শহরের পানিছত্র এলাকায় এমএ টাওয়ারের নিচ তলা ভাড়া নিয়ে ডাঃ অমিত গড়ে তুলেছেন মাদারীপুর চক্ষু হাসপাতাল। আনোয়ারা বেগম (৫৫) নামে এক মহিলা ওই হাসপাতালের চিকিৎসক মো: আবু ইউসুফের চিকিৎসা সেবা নিচ্ছেন। গত ১৪ ই মার্চ আবু ইউসুফের পরিবর্তে ডাঃ সুব্রত পাল আনোয়ার এক চোখের অপারেশন করেন। এরপর থেকেই আনোয়ারার চোখে সমস্যা হতে থাকে। এক পর্যায়ে আনোয়ারা এক চোখে কিছুই দেখেনা। ভুক্তভোগীর স্বজনরা বুধবার সকালে হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে জেলা সিভিল সার্জন ও সাংবাদিকদের খবর দেন। পড়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে হাসপাতালের এমডি ডাঃ অমিতকে ১ মাসের কারাদণ্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

আনোয়ারা বেগমের ছেলে দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমার মায়ের চোখের লেন্স লাগানোর জন্য ডাঃ আবু ইউসুফকে দেখাইছি। ডাঃ সুব্রত পাল আমাদের ভয় ভিতি দেখিয়ে আমার মায়ের চোখের অপারেশন করে। এরপর থেকেই আমার মা চোখে কিছু দেখেনা। আমি এর বিচার চাই।

জেলা সিভিল সার্জন শফিকুল ইসলাম বলেন, ওই হাসপাতাল ও ডাক্তারের জন্য তদন্ত টিম গঠন করা হয়েছে।

জেলা প্রশাসক ডা. রহিমা খাতুন বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে একজনকে এক মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

জিএম / নাজমুল