বীরগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা, গ্রেফতারের দাবিতে সড়ক অবরোধ, চেয়ারম্যান পলাতক

রংপুর ব্যুরো

প্রকাশিত: ৫:৩৯ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৩, ২০২০ | আপডেট: ৫:৩৯:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ২৩, ২০২০

এন.আই.মিলন, দিনাজপুর প্রতিনিধি- দিনাজপুরের বীরগঞ্জে প্রবাস ফেরৎ এক মহিলাকে নিজপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান এমএ খালেক সরকার ধর্ষনের অভিযোগে থানায় মামলা হয়েছে, পুলিশ ভিডিও ফুটেজ জব্দ করে ভিকটিম বাদীকে আদালতে প্রেরন করে, ধর্ষক চেয়ারম্যানকে গ্রেফতারের দাবিতে বীরগঞ্জ পৌর শহরের পুরাতন শহীদ মিনার মহাসড়ক অবরোধ করে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

এজাহার সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নে বলরামপুর গ্রামের বাসিন্দা প্রবাসী এক মহিলাকে ২২ ডিসেম্বর’২০ দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান আঃ খালেক মহিলাটির ভিডিও ফেরৎ দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে নখাপাড়ায় অবস্থিত চেয়ারম্যানের ইটের ভাটা সংলগ্ন পশ্চিম পার্শে জনৈক আব্দুর রশিদের শয়ন ঘরে নিয়ে গিয়ে ধর্ষন করে। ধর্ষনের ঘটনাটি কৌশলে ভিকটিম মহিলা নিজেই ভিডিও ধারন করে।

এজাহারে তিনি জানায়, বাদী ভিকটিম দারিদ্রতার সুযোগে চেয়ারম্যান এমএ খালেক দির্ঘদিন ধরে তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করে মোবাইল ফোনে ভিডিও করে রেখে তাকে জিম্মি করে রাখে। ভালবাসার ছলনা বুঝতে পেরে ভিকটিম নিজেকে ও সন্মান রক্ষার জন্য সৌদি আরবে কাজ করতে চলে যায়। সেখানেও মোবাইল ফোনে তাকে যৌন সংক্রান্ত ভিডিও সেক্স করে। দেশে ফিরার পর হতে তাকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদর্শন করে। দেশে ও বিদেশে থাকা কালে কথাকথন, ভিডিও প্রমান হিসাবে মামলার তদন্তকারী অফিসারকে দিয়েছে বাদী।

বীরগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল মতিন প্রধান বলেন, ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে বীরগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। যাহার মামলা নং- ১৬ তাং ২৩ /১২/২০২০ ইং। ধারা ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের। মামলার পর পুলিশ চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক সরকারকে গ্রেফতারের অভিযান পরিচালনা করছে।

এদিকে ধর্ষিতাকে মেডিকেল টেষ্ট করার জন্য দিনাজপুর আব্দুল রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ফরেন্সি বিভাগে প্রেরন করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email