কলাপাড়ায় অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধু শিরিন হত্যার আসামীদের গ্রেফতারের দাবিতে চাচার সংবাদ সম্মেলন ॥

প্রকাশিত: ১২:৫১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০২০ | আপডেট: ১২:৫১:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০২০

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি    ঃ   কলাপাড়ায় ৫ মাসের
অন্ত:সত্ত্বা গৃহবধু শিরিনের (২২) হত্যার আসামিদের গ্রেফতার ও বিচারের
দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে নিহতের পরিবার। শনিবার কলাপাড়া প্রেসক্লাবে এ
সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ্এসময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নিহতের চাচা আ:
মন্নান মাতুব্বর। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন নিহত শিরিনের পিতা
মোখলেছ হাওলাদার, বোন খাদিজা আক্তার, চাকামইয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়াম্যান
মো: মজিবুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন,
আওয়ামীলীগ নেতা মকবুল দফাদার, ইউপি সদস্য আবুল কালাম ও নিহত শিরিনের
স্বজনরা। শিরিনের বাবা মোখলেছ হাওলাদার বাদী হয়ে মিঠু সিকদারকে প্রধান
আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করে। কিন্তু পুলিশ গত ১৫ দিনেও মামলার কোন
আসামী গ্রেফতার করতে পারেনি। তিনি সকল আসমীদের গ্রেফতার করে বিচারের দাবি
জানান।

মৃত শিরিনের চাচা লিখিত বক্তব্যে উল্লেখ করেন, চাকামইয়া ইউনিয়নের
বাইনবুনিয়া গ্রামের মোখলেছ হাওলাদারের মেয়ে শিরিন আক্তারের দুই বছর আগে
আমতলীর বান্দ্রা এলাকার ট্রলি চালক মিঠু সিকদারের সাথে বিয়ে হয়। বিয়ের পর
সে শ্বশুড় বাড়ি থাকলেও পারিবারিক কলহের কারনে দুই মাস আগে পৌর শহরের
নাচনাপাড়া মহল্লার জাহাঙ্গীর গাজীর বাড়িতে ভাড়া বাসায় ওঠে। সে পাঁচ মাসের
অন্তঃস্বত্তা ছিলো। যৌতুকের দাবিতে তার বোন শিরিনকে নির্মম ভাবে শারিরীক
নির্যাতন করে হত্যা করে ঘরে লাশ ফেলে রেখে মিঠু পালিয়ে যায়।

সংবাদ সম্মেলনে নিহত শিরিনের পিতা মোখলেছ হাওলাদার সাংবাদিকদের বিভিন্ন
প্রশ্নের বলেন, বিয়ের সময় নগদ টাকা, স্বর্নালংকার দিয়ে জামাইর বাড়িতে
তুলে দেওয়া হয়। এরপরও জামাই মিঠু ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে মেয়ে শিরিনকে
চাপ দিলে মেয়ে আমার অর্থনৈতিক অবস্থা চিন্তা করে টাকা দিতে অপারগতা
প্রকাশ করলে তার উপর  নির্যাতন করা শুরু করে। ঘটনার দিন মেয়েকে নির্মম
ভাবে শারিরীক নির্যাতন করে হত্যা করে ঘরে লাশ ফেলে রেখে পালিয়ে যায়। আমি
আামার মেয়ের এই নির্মম হত্যার বিচার চাই।

কলাপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান
বলেন, আসামীরা পালাতক রয়েছে। তাদের দ্রুত প্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, ১৯ নভেম্বর কলাপাড়া পৌর শহরের নাচনাপাড়া চৌরাস্তা এলাকার ভাড়া
বাসা থেকে পাঁচ মাসের অন্তঃস্বত্তা গৃহবধু শিরিনের (২২) মরদেহ উদ্ধার করে
পুলিশ মরদেহের সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য পটুয়াখালী মর্গে প্রেরণ
করেছে। স্বামী ট্রলি চালক মিঠু সিকদার লাশ ঘরে রেখে পালিয়ে যায়।

Print Friendly, PDF & Email