আ’লীগ প্রার্থীর ইশতেহার ঘোষণাঃ তিন মেয়র প্রার্থীকে দল থেকে বহিস্কার

নাজমুল হক নাজমুল হক

ব্যাবস্থাপনা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৫:০৪ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৫, ২০২০ | আপডেট: ৫:০৪:অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৫, ২০২০

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

মাদারীপুরের রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় সংগঠন বিরোধী ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে রাজৈর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী তিন সদস্যকে বহিস্কার করেছে মাদারীপুর জেলা আওয়ামীলীগ। শনিবার বেলা ১২টায় রাজৈর উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তাদের বহিস্কারের বিষয়টি জানানো হয়। একই অনুষ্ঠানে রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনে আ’লীগ মনোনীত প্রার্থী নাজমা রশিদ নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন।
বহিস্কারকৃতরা হচ্ছেন রাজৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল মোতালেব মিয়া এবং রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনের মেয়র প্রার্থী রাজৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. সিদ্দিকুর রহমান বক্কার, রাজৈর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. শামীম নেওয়াজ এবং রাজৈর পৌরসভা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক গোপা শারমীন।
সংবাদ সম্মেলনে শুরুতে রাজৈর পৌরসভাকে মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত, সুন্দর পরিচ্ছন্ন এবং প্রযুক্তি নির্ভর উন্নত নাগরিক সেবার পৌরসভার গড়ার লক্ষে ৫০টি দফা সম্বলিত একটি ইশতেহারে ঘোষণা করা হয় দলীয় প্রার্থী নাজমা রশিদ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদ মোল্লা, সহ-সভাপতি এডভোকেট সুজিত চাটার্জী বাপ্পী, সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জমির উদ্দিনসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাবু্িদ্দন আহমেদ মোল্লা সাংবাদিকদের জানান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আসন্ন রাজৈর পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর পক্ষে দলীয় নেতাদের কাজ করার কথা। অথচ তারা পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রার্থী এবং প্রার্থীকে সহযোগিতা করে নির্বাচনী কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় সংগঠন বিরোধী ও দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের শামিল। তাই দলীয় শৃঙ্খলা রক্ষার জন্য তাদের সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়েছে।
এব্যাপারে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজল কৃষ্ণ দে জানান, ‘বহিস্কারাদেশ দেয়া চার নেতা ছাড়াও আরো দুই জনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। তারা আগামী তিন দিনের মধ্যে সঠিক জবাব না দিলে তারাও বহিস্কার হবেন। তারা হলেন রাজৈর উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক রেদওয়ানুল হক রিজন ও রাজৈর উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি সাহাবুদ্দিন সাহা।’
রিটানিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মনিরুজ্জামান জানান, রাজৈর পৌর নির্বাচনে ৭ জন মেয়র পদে, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ৯ জন এবং ৩২ জন সাধারণ কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছেন। ৭ জন মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে একজন বিএনপি দলীয়। এখন পর্যন্ত সবকিছুই ঠিক ভাবে চলছে। এবারই প্রথম ইভিএমএ ভোট গ্রহন হবে। আশা করি সুষ্ঠভাবে ভোট গ্রহন করা সম্ভব হবে।

জিএম/নাজমুল