গুচ্ছ ভিত্তিতে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে

প্রকাশিত: ১:৩১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০২০ | আপডেট: ১:৩১:পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৩, ২০২০

দেশের ১৯টি সা’ধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বি’শ্ববিদ্যালয়ে এই বছরে গুচ্ছ পদ্ধতিতে তিনটি ভ’র্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে বি’শ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন।

মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) ওই ১৯টি বিশ্ব’বিদ্যালয়ের উপাচার্যদের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) এক সভায় গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি পরীক্ষা নেওয়ার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়। এর আগে গত বছর থেকে দে’শের সাতটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি প’রীক্ষা নেওয়া শুরু করেছিল। এবার ১৯টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ও গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি প’রীক্ষা নেবে। অনলাইনে নয়, সরাসরি ভর্তি পরীক্ষা হবে এসব বি’শ্ববিদ্যালয়ে।
এর মধ্যে একটি পরীক্ষা হবে বিজ্ঞা’নের শিক্ষার্থীদের জন্য, আরেকটি মানবিকের জন্য এবং অপরটি ব্য’বসায় শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের জন্য। তবে এর মধ্যেই বিভাগ পরিবর্তনেরও সুযোগ থাকবে। এর মা’নে একজন ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থী নিজ নিজ বিভাগে একটি পরীক্ষা দি’য়েই যোগ্যতা ও আসন অনুযায়ী যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাবেন।

২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ১৯টি সাধা’রণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছভিত্তিক ভর্তি পরী’ক্ষার যুগ্ম আহ্বায়কের দায়িত্বে আছেন জগন্নাথ বিশ্ব’বিদ্যালয়ের উপাচার্য মীজানুর রহমান। তিনি গণমা’ধ্যমকে বলেন, এই ১৯টি বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য মোট তিনটি পরী’ক্ষা হবে। এর মধ্যেই বিভাগ পরিবর্তনের সুযোগ থাকবে। গু’চ্ছে থাকা প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষার কেন্দ্র থা’কবে। ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থী বেশি হলে অন্যান্য শিক্ষাপ্রতি’ষ্ঠানেও কেন্দ্র করা হতে পারে।

তিনি আরও জানান, এই পরী’ক্ষার ভিত্তিতে ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের একটি স্কোর দেও’য়া হবে। এরপর গুচ্ছে থাকা বিশ্ববিদ্যা’লয়গুলো নিজ নিজ শর্ত ও চাহিদা উল্লেখ ক’রে শিক্ষার্থী ভর্তির বিষয়ে পত্রি’কায় বিজ্ঞাপন প্রকাশ করবে। পরীক্ষায় পাওয়া স্কোর অনু’যায়ী বিশ্ববিদ্যালয়গুলো শিক্ষার্থী ভ’র্তি করবে।
সভায় সিদ্ধান্ত হয়, ভর্তি পরী’ক্ষার প্রশ্ন হবে উচ্চমাধ্যমিকের পা’ঠ্যসূচির ভিত্তিতে।

Print Friendly, PDF & Email