সন্ধ্যা ৭টার পর অভিভাবক ছাড়া শিক্ষার্থীরা বাইরে নয়

প্রকাশিত: ১১:৪৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০ | আপডেট: ১১:৪৭:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০

মাদারীপুরে প্র’তিদিন সন্ধ্যা ৭টার পর অভিভা’বক ছাড়া কোনো শিক্ষার্থী বা উ’ঠতি বয়সী ছেলেরা বাড়ির বা’ইরে বের হতে পারবে না এবং চা’য়ের দোকানগুলোতে কো’নো টিভি রাখা যাবে না। বুধ’বার (২৫ নভেম্বর) রাতে বি’ষয়টি জানাজানি হয়।

মাদা’রীপুরের জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতু’ন মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিবচর উপ’জেলা পরিষদের সম্মেল’নকক্ষে জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্ম’কর্তা, সাংবাদিক, গণ্যমাণ্য ব্যক্তি’দের সঙ্গে মতবিনিময় সভা’য় এসব কথা বলেন।

এ সময় জে’লা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন বলেন, বর্ত’মান দেশব্যাপী করোনা প’রিস্থিতি, কিশোর গ্যাং তৈরি হয়েছে, ধ’র্ষণ, নারী নির্যাতন’সহ বিভিন্ন বিষয় বিবেচনা করে আমরা কি’ছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি। তার ম’ধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো সন্ধ্যা ৭টা’র পরে কোনো শিক্ষা’র্থী বা উঠতি বয়সী ছে’লেরা বাড়ির বাইরে যেতে পারবে না। যদি একা’ন্তই প্রয়োজন হয় তাহলে অভি’ভাবকের সঙ্গে নিয়ে বের হতে পারবে।

অপর দিকে’ বিভিন্ন চায়ের দোকানে অ’ধিক রাত পর্যন্ত টি’ভি চলে। আর সেই সঙ্গে দোকানগুলোতে জ’মে ওঠে আড্ডা। এ আড্ডাতে দেখা যা’য় বয়স্কদের চেয়ে ত’রুণ ও উঠতি বয়সে’র যুবকরাই বেশি। চায়ের দোকানে টিভি দে’খে চা পান করতে করতে শিক্ষার্থীরা অধিক রা’ত পর্যন্ত বাড়ির বাই’রেই সময় পার ক’রছে। এতে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া চরম’ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। অধিক রাত পর্যন্ত বাড়ির বাই’রে থাকার কারণে অনেক শিক্ষার্থীই মা’দকের প্রতি ঝুঁকে পড়ছে। দিন দিন মা’দকাসক্ত হয়ে পড়ে জুয়া খেলাসহ বিভি’ন্ন অপরাধের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে তারা। এ ছাড়া যা’রা বয়স্ক যারা রয়েছেন তারাও কিন্তু অ’ধিক রাতে বাড়ি ফেরার কারণে নিজের স’ন্তানের লেখাপড়ার কোনো খোঁজখবর নি’তে পারছেনে না। তাই পৌরসভার ম’ধ্যে রাত ১০টা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে রাত ৯টার মধ্যে সক’ল দো’কানপাট বন্ধ করতে হবে।

সভায় উপজেলা চেয়ার’ম্যান আ. লতিফ মোল্লা, পৌরসভার মেয়’র মো. আওলাদ হোসেন খান, উপজেলা নির্বাহী কর্ম’কর্তা মো. আসাদুজ্জামান, উপ’জেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এম রাকি’বুল হাসান, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ জাতীয় কমিটির স’দস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোস’লেম উদ্দিন খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মোল্লা, উ’পজেলা ভাইস চেয়ারম্যান বিএম আতাউর রহ’মান ফাহিমা আক্তার, উপ’জেলা যুবলীগ সভাপতি ইলিয়াস পাশা, প্রেসক্লাব স’ভাপতি একেএম নাসিরুল হক, দুর্নীতি প্র’তিরোধ কমিটির সাধারণ স’ম্পাদক প্রদ্যুৎ কুমার সরকারসহ বিভিন্ন দফতরের স’রকারি কর্মকর্তা, ইউপি চেয়ারম্যান, পৌরসভার কাউন্সিলর, শিক্ষক, ই’উপি সদস্যরা উ’পস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email