কলাপাড়ায় শীতকালীন সবজি চাষীর ২ লক্ষ টাকার ক্ষতি করেছে দুর্বৃত্তরা ॥

প্রকাশিত: ৮:৩৬ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০ | আপডেট: ৮:৩৬:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৫, ২০২০

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি  ঃ  কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের ছলিমপুর
গ্রামের কৃষক দেলোয়ার গাজী, হাসান হাং ও আবুল মোল্লার সবজি ক্ষেত ও
বীজতলায় ঘাষ নিধনকারী ওষুধ প্রয়োগ করে তাদের প্রায় ২ লক্ষাধিক টাকার
ক্ষতি সাধন করেছে দুর্বৃত্তরা। বুধবার গভীর রাতে একদল দুর্বৃত্তরা এ ঘটনা
ঘটায়।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, দেলোয়ার গাজী শীতকালীন সবজি চাষের জন্য ৬ ফুট
প্রস্থ ও ৩০০ ফিট দৈর্ঘ্যরে একটি বিজতলা প্রস্তুত করে ফুলকপির চারা
উৎপাদন করে। বিজতলায় প্রায় আনুমানিক ৪০ হাজার চারা বিক্রি এবং ক্ষেতে
রোপন করার উপযোগী হয়। ফলে তিনি চারা রোপনের জন্য প্রায় ২ বিঘা জমি
প্রস্তুত করেন। হঠাৎ পুর্ব শত্রুতার জেরে বুধবার রাতের আধারে সমস্ত চারায়
ঘাষ নিধনকারী ওষুধ প্রয়োগ করে ধ্বংস করে দেয় দুর্বৃত্তরা। কৃষক দেলোয়ার
বলেন, এই চারা রোপন করে আমি এই মৌসুমে পাঁচ লক্ষাধিক টাকা আয় করতে পারতাম
তাই এই জঘন্যতম অপরাধ যারা ঘটিয়েছেন তাদের দৃষ্টান্তমুলুক শান্তি কামনা
করছি।

অপর দিকে একই রাতে পার্শ্ববর্তী সবজি ক্ষেত আবুল মোল্লা ও হাসান হাং:-এর
লাল শাকের ক্ষেতেও ওষুধ প্রয়োগ করে লালশাক সহ বিভিন্ন ধরনের সবজির চারার
বিজতলা ধ্বংস করে দেয় এতে করে আবুল মোল্লা প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতির
সম্মুখিন হয় তাই তিনি অপরাধীর দৃষ্টান্তমুলুক শান্তি দাবী  করেন।

এ বিষয়ে নীলগঞ্জ ইউনিয়ন কৃষি কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন
আমি ক্ষতিগ্রস্থ ক্ষেত এবং বিজতলা পরিদর্শন করেছি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তার
সাথে কথা বলে তাদের প্রণোদনা দেয়ার চেস্টা করা হবে।