৫৫ টাকার কমে পেঁয়াজ বিক্রি করা সম্ভব নয়: বাণিজ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৩:২৩ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০২০ | আপডেট: ৩:২৩:পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ২, ২০২০

সরকারের সহযো’গিতায় পেঁয়াজ আমদানি শু’রু হলেও, ৫৫ টাকার কমে বিক্রি ‘ক’রা সম্ভব নয় বলে জা’নিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টি’পু মুনশি।

রোববার (০১ নভে’ম্বর) রাজধানীর পুরানা পল্টনে অর্থনৈ’তিক সাংবাদিকদের সংগ’ঠন ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরাম (ইআরএফ)-এর বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড-২০২০-এ প্র’ধান অতিথির বক্তব্য প্রদানকালে বাণি’জ্যমন্ত্রী এমন মন্তব্য করেন।

মন্ত্রী বলেন, তিনদিন আগে থে’কে দেশে পেঁয়াজ আসা শুরু হয়েছে। চা’হিদার তুলনায় ৮ থেকে ৯ লাখ মেট্রিক টন পেঁয়াজের ঘাটতি হয়। এবার ভারতের সংকটের কা’রণে বাংলাদেশও ঘাটতির মধ্যে প’ড়েছে। এ বছর ৯টি ক্যাটাগরিতে ১৫ জন ইআরএফ সদস্য সেরা রিপোর্টার হিসেবে নি’র্বাচিত ‘হন। অ্যাওয়ার্ড প্রদানে সহায়তা ক’রেছে দ্য এশিয়া ফাউন্ডে’শন। বিজয়ীদের ক্রেস্ট, সম্মাননাসহ নগদ ৫০ হা’জার টাকা পুরস্কার দেও’য়া হয়।

অ’নুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বি’জয়ী সাংবাদিকদের হাতে ক্রেস্ট ও চেক তু’লে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী। কো’ভিড নাইন্টিন ও অর্থনীতি ক্যাটাগরিতে সেরা প্র’তিবেদকের পুরস্কার পে’য়েছেন সময় টেলিভিশনের প্র’তিবেদক জুবায়ের ফয়সাল।

বা’ণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত বছর পেঁয়াজের বা’জারে অস্থিরতা সৃষ্টি হয়েছিল। ওই অ’ভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে এ’বার আগে থেকেই আমরা প্রস্তুত ছিলাম। সং’কট সৃষ্টি হওয়ার স’ঙ্গে সঙ্গে সরকারের স’হযোগিতায় পেঁয়াজ আমদানি শুরু ক’রা হয়। তিন দিন আগে দেশে পেঁয়াজ আসা শু’রু হয়েছে। ব্যবসায়ীদের মু’নাফা, আমদানিকারকদের কমি’শনসহ সব খরচ যোগ করে প্র’তিকেজি পেঁ’য়াজের দাম ভোক্তা প’র্যায়ে কোনও অবস্থায় ৫৫ টাকার নি’চে নামিয়ে আনা স’ম্ভব নয়।

Print Friendly, PDF & Email