করোনা জটিলতা মাথায় রেখেই বাংলাদেশ-নেপাল ম্যাচ

প্রকাশিত: ৩:০৬ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১, ২০২০ | আপডেট: ৩:০৬:পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১, ২০২০

বাংলাদেশের সঙ্গে ম্যা’চের আগে নেপালের ক্যাম্পে ৪ জ’ন ফুটবলার করোনা আক্রান্ত। দাবি দেশ’টির গণমাধ্যমের। তারপরও নেপালের ফুটবল দলের বাংলাদেশ সফরে কোয়ারেন্টিন শিথিল করা হ’বে বলে জানিয়ে’ছেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল। এদিকে, ম্যা’চের আগে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের ফ্লা’ডলাইট নিয়ে দেখা’ দিয়েছে শঙ্কা। ফ্লাডলাইটগুলো পুরনো হয়ে যাওয়ায় আ’লোক স্বল্পতা দেখা দিতে পারে জানিয়ে নেপালের রয়েছে আপত্তি।

বাং’লাদেশ ফুটবল দল আর নেপালের ম্যা’চ মাঠে গড়ানোর আগে দুঃসংবাদ। নেপাল জা’তীয় দলের বেশ কজন ফুটবলারের করোনা আক্রান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে দে’শটির গণমাধ্যম। তাদের দ্রুতই আইসোলেশনে নে’য়া হয়েছে। বাকি ফুটবলারদের নিয়ে বাং’লাদেশ সফরের আগে ক্যাম্প ক’রছে অতিথিরা।

খবরটা হ’য়তো ইতিমধ্যে জেনেছে ফুটবল ফে’ডারেশন। কিন্তু তারপরও পূর্ব নি’র্ধারিত ১৩ নভেম্বর প্রথম ম্যা’চের তারিখ রাখা হয়েছে। কো’য়ারেন্টিন তাই ১৪ দিন হচ্ছে না নিশ্চিত। প্র’তিপক্ষের ফুটবলাররা করোনা আক্রান্ত হবার পর ঝুঁ’কি থাকলেও, নমনীয় বাং’লাদেশের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রাণালয়।

প্রতি’মন্ত্রী জাহিদ হাসান রা’সেল বলেন, এখন কি’ন্তু বাংলাদেশে কোয়ারেন্টাইনের বি’ষয়টা একটু শিথিল করা আছে। আমি মনে করি যেহেতু বাংলাদেশ ও নেপালের মধ্যে যেন এই ম্যা’চটি হতে পারে কোন টানাপো’ড়েন যেন না হয় সেটি নিশ্চিত করব।

ভাইরাস ভ’য়ের সাথে আছে আরেক জটিলতা। তা হলো ব’ঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের ফ্লাড লাইট। যা অনেক পুরোনো। রাতে ম্যাচ আয়োজনে দেখা দিতে পারে আ’লোকস্বল্পতা। অতীতে এমন ফ্লাড লাইট বি’ড়ম্বনায় অনেক সমালোচনা হয়েছে। এই মাঠে ফুটবল ম্যাচ আয়োজনে নাকি আ’পত্তি জানিয়েছে নেপাল ক’র্তৃপক্ষ। এমন অবস্থায় স্বল্প সম’য়ে ফ্লাড লাইট সংস্কারের ব্যাপারে আশ্বাস মিললো যুব ও ক্রীড়া প্রতি’মন্ত্রীর কাছে থেকে।

প্রতিমন্ত্রী জাহিদ হাসান রাসেল আ’রো বলেন, সহজেই কা’জটা করা যেত। যাই হোক এক’টা ইন্টারন্যাশনাল ম্যাচ হবে, আমাদের জন্য এটি সুখবর, অ’বশ্যই যেন দ্রুত সব হয় সে বিষয়ে খে’য়াল রাখব।

নেপাল ফুটবল দ’লে করোনার হানা আর দুই দ’লের ম্যাচ ভেন্যুর ফ্লাড লাইট সম’স্যার পরেও, বাংলাদেশ-নেপালের দুটি আন্তর্জাতিক ম্যাচ সামনে রেখে প্রায় ৮ হাজার দ’র্শক মাঠে প্রবেশের সুযোগ দি’চ্ছে বাফুফে।