Dhaka ০৪:৫৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ময়মনসিংহে ব্র্যাকের আয়োজনে কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা এবং এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত

  • Reporter Name
  • Update Time : ০১:০০:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪
  • ৭৮ Time View

।। বিশেষ প্রতিনিধি ।।
ময়মনসিংহে ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনি সুরক্ষা কর্মসূচি কর্তৃক পরিচালিত অধিকার এখানে, এখনই প্রকল্পের আয়োজনে ১৮ মার্চ সোমবার জেলার ব্র্যাক লার্নিং সেন্টারে কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা এবং বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে দিনব্যাপী এক এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্র্যাক অধিকার এখানে, এখনই প্রকল্প আয়োজিত এ্যাডিভোকেসি সভায় ময়মনসিংহ সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে কর্মরত উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার, পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক, পরিবার পরিকল্পনা সহকারী ও বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ইয়ুথগণ অংশগ্রহণ করেন। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরে ময়মনসিংহের উপ-পরিচালক কাজী মাহফুজুল করিম। অন্যান্যের মধ্যে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ মাহাদী হাসান খান । কৈশোর-বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা ও স্কুলে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জ চিহ্নিতকরন ও সমাধানে কৌশল নির্ধারণের মাধ্যমে পারস্পরিক অংশিদারিত্ব তৈরি এবং কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্য সেবা ও স্কুলে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে পরিকল্পনা গ্রহণের উদ্দেশ্যে এই এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

অংশগ্রহণকারীরা কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা এবং বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নের বর্তমান প্রেক্ষাপট, চ্যালেঞ্জ এবং চ্যালেঞ্জ উত্তোরণে করনীয় এবং পরিকল্পনা নিয়ে গ্রুপ ওয়ার্কের মাধ্যমে সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধানের জন্য প্রস্তাবনা তুলে ধরার পাশাপাশি এই ক্ষেত্রে নিজেদের পরিকল্পনাও উপস্থাপন করেন। এক্ষেত্রে যে সকল চ্যালেঞ্জ বের হয় তার প্রেক্ষিতে উপ-পরিচালক তার বক্তব্যে সমস্যা সমাধান করে বাস্তবায়নের উপর জোর দেন। তিনি বলেন, বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যদি রুমের ব্যবস্থা করেন, তাহলে সেখানে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উদ্যোগে কৈশোর স্বাস্থ্য কর্ণার গড়ে তোলা হবে। যেখান থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রজনন স্বাস্থ্যর উপর বিভিন্ন বই ও প্রকাশনা পড়ার সুযোগ পাবে। সাথে স্বাস্থ্য সামগ্রীও সরবরাহ করা হবে। কর্মসূচির ইয়ুথ সদস্য দেলোয়ারের প্রশ্নের আলোকে তিনি আরও বলেন, ব্যাপক জনাসমাগম হয় এমন বড় ধরনের কোন অনুষ্ঠানে আগে থেকে জানালে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমান চলচিত্র ইউনিট সেখানে প্রজনন স্বাস্থ্যের উপর ভিডিও ডকুমেন্টারি দেখাবে। বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে তিনি বলেন, বিদ্যালয় ভিত্তিক শিক্ষকদের তালিকা তৈরি করা হবে। তালিকা তৈরি হয়ে গেলে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উদ্যোগে শিক্ষকদের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে। এর মাধ্যমে এক দিকে যেমন স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়ন তরান্বিত হবে অন্যদিকে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারগণ সহজেই বিদ্যালয়ের উক্ত শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করে রুটিন মাফিক তাদের স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন পরিচালনা করতে সক্ষম হবেন।

 

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বলেন, যে সকল বিদ্যালয় এলাকায় উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার নাই সেই এলাকার শিক্ষক/এসএমসি যদি আমাকে জানান তাহলে প্রয়োজনে আমি নিজেই সেই সকল বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন পরিচালনা করবো। কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্য সেবার প্রচার প্রচারনা বৃদ্ধিতে লিফলেটের ব্যবস্থা করা হবে। যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে ব্যাপক প্রচারণার জন্য ইয়ুথদের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে।

জেলার মুকুল নিকেতন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সামছুল আলম সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশনের জন্য পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা যদি বিদ্যালয়ের ক্লাস রুটিনের সাথে সমন্বয় করে সেশন প্লান করেন, তাহলে বাস্তবায়ন সহজ হবে।

 

“অধিকার এখানে, এখনই” প্রকল্পের আয়োজনে ইয়ুথ লিডার মাহমুদুল হাসান মামুনের সভাপতিত্বে এবং ইয়ুথ সদস্য কথা আক্তারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রকল্প সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা এবং বিদ্যালয় স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন ও কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্য সেবা সম্পর্কে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের ও শিক্ষা অধিদপ্তরের উদ্যোগসমূহসহ এ্যাডভোকেসি সভার উদ্দেশ্য নিয়ে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বিস্তারিত আলোচনা করেন প্রকল্পের এরিয়া কো-অর্ডিনেটর মোঃ জিল্লুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ব্র্যাক জেলা সমন্বয়কারী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, ম্যানেজার ব্র্যাক ইন্টারনাল অডিট পার্থ সরথী বল প্রমুখ। এ্যাডভোকেসি সভায় সার্বিক সহায়তা করেন প্রকল্পের জেলা ইয়ুথ মবিলাইজার নুসরাত জাহান, ইয়ুথ লিডার শুভ, দেলোয়ারসহ অন্যান্য ইয়ুথ সদস্য।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

gm news

মাদারীপুরের শিবচরে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু

ময়মনসিংহে ব্র্যাকের আয়োজনে কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা এবং এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত

Update Time : ০১:০০:৩৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪

।। বিশেষ প্রতিনিধি ।।
ময়মনসিংহে ব্র্যাক সামাজিক ক্ষমতায়ন ও আইনি সুরক্ষা কর্মসূচি কর্তৃক পরিচালিত অধিকার এখানে, এখনই প্রকল্পের আয়োজনে ১৮ মার্চ সোমবার জেলার ব্র্যাক লার্নিং সেন্টারে কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা এবং বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে দিনব্যাপী এক এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্র্যাক অধিকার এখানে, এখনই প্রকল্প আয়োজিত এ্যাডিভোকেসি সভায় ময়মনসিংহ সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে কর্মরত উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার, পরিবার পরিকল্পনা পরিদর্শক, পরিবার পরিকল্পনা সহকারী ও বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও প্রকল্প সংশ্লিষ্ট ইয়ুথগণ অংশগ্রহণ করেন। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরে ময়মনসিংহের উপ-পরিচালক কাজী মাহফুজুল করিম। অন্যান্যের মধ্যে ময়মনসিংহ সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ মাহাদী হাসান খান । কৈশোর-বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা ও স্কুলে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে চ্যালেঞ্জ চিহ্নিতকরন ও সমাধানে কৌশল নির্ধারণের মাধ্যমে পারস্পরিক অংশিদারিত্ব তৈরি এবং কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্য সেবা ও স্কুলে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে পরিকল্পনা গ্রহণের উদ্দেশ্যে এই এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

অংশগ্রহণকারীরা কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্যসেবা এবং বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নের বর্তমান প্রেক্ষাপট, চ্যালেঞ্জ এবং চ্যালেঞ্জ উত্তোরণে করনীয় এবং পরিকল্পনা নিয়ে গ্রুপ ওয়ার্কের মাধ্যমে সমস্যা চিহ্নিত করে সমাধানের জন্য প্রস্তাবনা তুলে ধরার পাশাপাশি এই ক্ষেত্রে নিজেদের পরিকল্পনাও উপস্থাপন করেন। এক্ষেত্রে যে সকল চ্যালেঞ্জ বের হয় তার প্রেক্ষিতে উপ-পরিচালক তার বক্তব্যে সমস্যা সমাধান করে বাস্তবায়নের উপর জোর দেন। তিনি বলেন, বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যদি রুমের ব্যবস্থা করেন, তাহলে সেখানে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উদ্যোগে কৈশোর স্বাস্থ্য কর্ণার গড়ে তোলা হবে। যেখান থেকে ছাত্র-ছাত্রীরা প্রজনন স্বাস্থ্যর উপর বিভিন্ন বই ও প্রকাশনা পড়ার সুযোগ পাবে। সাথে স্বাস্থ্য সামগ্রীও সরবরাহ করা হবে। কর্মসূচির ইয়ুথ সদস্য দেলোয়ারের প্রশ্নের আলোকে তিনি আরও বলেন, ব্যাপক জনাসমাগম হয় এমন বড় ধরনের কোন অনুষ্ঠানে আগে থেকে জানালে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের ভ্রাম্যমান চলচিত্র ইউনিট সেখানে প্রজনন স্বাস্থ্যের উপর ভিডিও ডকুমেন্টারি দেখাবে। বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়নে তিনি বলেন, বিদ্যালয় ভিত্তিক শিক্ষকদের তালিকা তৈরি করা হবে। তালিকা তৈরি হয়ে গেলে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উদ্যোগে শিক্ষকদের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে। এর মাধ্যমে এক দিকে যেমন স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন বাস্তবায়ন তরান্বিত হবে অন্যদিকে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসারগণ সহজেই বিদ্যালয়ের উক্ত শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করে রুটিন মাফিক তাদের স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন পরিচালনা করতে সক্ষম হবেন।

 

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বলেন, যে সকল বিদ্যালয় এলাকায় উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার নাই সেই এলাকার শিক্ষক/এসএমসি যদি আমাকে জানান তাহলে প্রয়োজনে আমি নিজেই সেই সকল বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন পরিচালনা করবো। কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্য সেবার প্রচার প্রচারনা বৃদ্ধিতে লিফলেটের ব্যবস্থা করা হবে। যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ে ব্যাপক প্রচারণার জন্য ইয়ুথদের প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা করা হবে।

জেলার মুকুল নিকেতন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সামছুল আলম সম্পূরক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, বিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশনের জন্য পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা যদি বিদ্যালয়ের ক্লাস রুটিনের সাথে সমন্বয় করে সেশন প্লান করেন, তাহলে বাস্তবায়ন সহজ হবে।

 

“অধিকার এখানে, এখনই” প্রকল্পের আয়োজনে ইয়ুথ লিডার মাহমুদুল হাসান মামুনের সভাপতিত্বে এবং ইয়ুথ সদস্য কথা আক্তারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রকল্প সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা এবং বিদ্যালয় স্বাস্থ্য শিক্ষা সেশন ও কৈশোর বান্ধব স্বাস্থ্য সেবা সম্পর্কে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের ও শিক্ষা অধিদপ্তরের উদ্যোগসমূহসহ এ্যাডভোকেসি সভার উদ্দেশ্য নিয়ে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে বিস্তারিত আলোচনা করেন প্রকল্পের এরিয়া কো-অর্ডিনেটর মোঃ জিল্লুর রহমান। অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ব্র্যাক জেলা সমন্বয়কারী মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, ম্যানেজার ব্র্যাক ইন্টারনাল অডিট পার্থ সরথী বল প্রমুখ। এ্যাডভোকেসি সভায় সার্বিক সহায়তা করেন প্রকল্পের জেলা ইয়ুথ মবিলাইজার নুসরাত জাহান, ইয়ুথ লিডার শুভ, দেলোয়ারসহ অন্যান্য ইয়ুথ সদস্য।