পর’কী’য়ায় বাধা দিয়েছে মে’য়ে, শিক্ষা দিতে প্রে’মিককে দিয়ে ধ’র্ষণ করাল মা!

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৪:০০ অপরাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২০ | আপডেট: ৪:০০:অপরাহ্ণ, জুন ২৩, ২০২০

মায়ের সঙ্গে প্রতিবেশী যুবকের পর’কী’য়ার প্রতিবাদ করেছিল নাবালিকা মে’য়ে। যার পরিণতি হল ভ’য়ংকর। ‘শিক্ষা’ দিতে প্রে’মিককে দিয়ে মে’য়েকে ধ’র্ষণ করাল মা! ম’র্মা’ন্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে ভা’রতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনার হাড়োয়ার মল্লিকঘেরী ঘাটপাড়ায়। এরই মধ্যে অ’ভিযু’ক্ত মহিলা ও তার প্রে’মিককে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ।

 

জানা গেছে, নির্যাতিতার বাবা কর্মসূত্রে কলকাতায় থাকেন। নাবালিকা ও তার মা একা থাকার সুযোগ কাজে লাগিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই তাদের বাড়িতে আসত এলাকার যুবক বিশু। পরবর্তীতে নির্যাতিতার মায়ের সঙ্গে প্রণয়ের স’ম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে সে। ক্রমশ ঘনিষ্ঠতা বাড়ে তাদের মধ্যে। বিষয়টি টের পেয়েই প্রতিবাদ করে নির্যাতিতা। কিন্তু তাতে কোনো কাজ হয়নি। পরে ওই যুবক ও মায়ের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ছবি ক্যামেরাব’ন্দি করে নাবালিকা। প্রমাণ হিসেবে দেখায় বাবাকে। এরপরই বিশুকে তার বাড়িতে যেতে বারণ করে দেন নির্যাতিতার বাবা।

 

এতেই নাবালিকার উপর বেজায় চটে যায় মা ও তার প্রে’মিক। ফন্দি আঁটতে শুরু করে মে’য়েকে শায়েস্তা করার। অ’ভিযোগ, এরপরই ওই মহিলার ইন্ধনে তার মে’য়েকে ধ’র্ষণ করে প্রে’মিক বিশু। বাবাকে জানালে নির্যাতিতাকে প্রা’ণনাশের হু’মকিও দেয় দুই অ’ভিযু’ক্ত। তবে সে সবের তোয়াক্কা না করেই গোটা ঘটনা বাবাকে জানায় নাবালিকা।

 

বাবা ও মে’য়ে হাড়োয়া থা’নায় অ’ভিযোগ দায়ের করার পর ওই মহিলা ও তার প্রে’মিককে গ্রে’প্তার করেছে পু’লিশ। নিজ কন্যার ওপর মহিলার এমন নৃ’শংস আচরণে হতবাক প্রতিবেশীরা।

সূত্র- সংবাদ প্রতিদিন।