“নোয়াখালীর সুবর্ণচর পৌরসভা” বাস্তবায়নের দাবিতে চট্টগ্রামে সংবাদ সম্মেলন

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৫:৪৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০ | আপডেট: ৫:৪৩:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২০

২৮ফেব্রুয়ারি শুক্রবার বিকালে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে “নোয়াখালীতে সুবর্ণচর পৌরসভা” বাস্তবায়নের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করে ‘সুবর্ণচর উপজেলাবাসী, চট্টগ্রাম। সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনের নেতা, কর্মীসহ উপস্থিত বিভিন্ন শ্রেণীপেশার লোকজন বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গত ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭ইং তারিখে চরজুবিলীতে একটি বিশাল জনসমাবেশে সুবর্ণচর পৌরসভা বাস্তবায়নের প্রতিশ্রুতি দেন।

 

মাননীয় সড়ক, পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ অঞ্চলের অধিবাসীদের পর্যাপ্ত নাগরিক সুযোগ-সুবিধা প্রদান, জীবনযাত্রার মানোন্নয়নসহ স্থানীয় লোকজনকে দেয়া প্রতিশ্রুতি মোতাবেক পৌরসভা বাস্তবায়নকল্পে সুবর্ণচর উপজেলার সদর দপ্তর চরজুবিলী মৌজা, পশ্চিম চরজুবিলী, উত্তর কচ্চপিয়া ও চরআমানুল্যাহ ইঊনিয়নের কাটাবুনিয়া গ্রামের অংশবিশেষ নিয়ে “সুবর্ণচর পৌরসভা” গঠনের জন্য স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ে একটি ডিও লেটার দেন। বক্তারা বলেন, একটি স্বার্থান্বেষীমহল সুকৌশলে সীমানা বর্ধিতকরণ প্রস্তাবের মাধ্যমে সুপরিকল্পিতভাবে উপজেলা সদর দপ্তর সংলগ্ন নাগরিকদের জীবনমান উন্নয়নকে ব্যাহত ও সুযোগ-সুবিধাবঞ্চিত করার লক্ষ্যে নানা প্রতিকূলতা সৃষ্টি করছে। যার কারণে গত আড়াই বছরে ও নোয়াখালীর একমাত্র পৌরসভাবিহীন উপজেলার সুবর্ণচর পৌরসভাটি বাস্তবায়িত হয়নি।

 

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রতিশ্রুতি ছিল, গ্রাম হবে শহর। প্রায় অর্ধ-লক্ষাধিক অকৃষিজীবী নাগরিকের জন্মভূমি চরজুবিলী গ্রামটিই শহর হবে জেনে সকলে ভোট প্রদান করে নৌকায়। জাতির জনক তনয়া মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট সুবর্ণচর পৌরসভা বাস্তবায়নে জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেন সংগঠনটি। বক্তব্য রাখেন, সংগঠনের আহবায়ক ছালেহ উদ্দিন, সদস্য সচিব মোহাম্মদ সহিদ উল্লাহ (বাচ্চু), অধ্যক্ষ আবদুল ওয়াহিদ, ব্যবসায়ী কাজী নজরুল, ইসলাম, আনোয়ার হোসেন, চট্টগ্রাম কোষ্টার হেজ ঠিকাদার শ্রমিক ইউনিয়ন এর সভাপতি জেবল হক, ইসমাইল হোসেন গাজী, আবুল কাশেম প্রমুখ।