বাবুগঞ্জের যুবলীগ নেতা রাজৈরে রহস্যজনক হত্যা!

আরিফ হোসেন আরিফ হোসেন

বাবুগঞ্জ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৮:০৩ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০ | আপডেট: ৮:০৩:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার চাঁদপাশা ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান মন্টু হাওলাদার’র(৪০) লাশ মাদারীপুরের রাজৈর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজের একদিন পর মিজানুর রহমান নামে এক যুবকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। মৃত মিজানুর রহমান বরিশালের এয়ারপোর্ট থানার চাঁদপাশা ইউনিয়নের বকশীরচর গ্রামের সামসুল হক হাওলাদারের ছেলে।

১৬ ফেব্রæয়ারি রবিবার বিকালে নিহতের লাশ মাদারিপুর সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের পর নিজ বাড়িতে জানাজা শেষে দাফন করা হয়। এসময় তদন্তপূর্বক হত্যাকারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে স্থানীয়রা।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার পাইকপাড়া ইউনিয়নের চারঘাটা নামক স্থানে তার দেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয় উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। হাসপাতাল রেজিস্ট্রার অনুযায়ী ১৪ই ফেফ্রুয়ারি দিবাগত রাত ২:৪৫ মিনিটে তাকে রিসিভ করা হয়।
নিহতের স্বজনরা জানান, ১৪ই ফেব্রæয়ারি শুক্রবার বিকালে মিজানুর রহমান মন্টু অজ্ঞাত ব্যক্তির ফোন পেয়ে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর সারারাত পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করলেও তার কোন সন্ধান পায়নি। শনিবার সকালে একটি মোবাইল নম্বর থেকে ফোনে জানানো হয়, মিজানুর রহমার মারা গেছে। পরে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে এসে পরিবারের লোকজন তার লাশ সনাক্ত করে।
স্বজনরা আরো বলেন, মন্টুকে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে। তার ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোনও পাওয়া যাচ্ছে না। এই হত্যা কান্ডের সাথে স্থানীয় প্রভাবশালী কেউ জরিত রয়েছে বলে ধারনা করছেন তারা। এ ঘটনায় মামলা করা হবে বলে জানান তারা।

ছবিতে দেখাযায়, তার দুই পা ভাঙ্গা, মাথায় ও কানে মর্মান্তিক যখম। সারাশরিরে জখমের চিহৃ। ছবি দেখে মর্মান্তিক হত্যাকান্ডের নির্মমতা উপলব্দি করা গেলেও ঘটনাস্থলের কতিপয় ভিন্নদিকে ধাবিত করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন নিহতের ঘনিষ্টজনরা।
মাদারীপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার উত্তম প্রসাদ পাঠক বলেন, লাশ উদ্ধারের ঘটনায় মামলা হলে পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।