Dhaka ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জীবনের বাকি সময়টুকু জনসেবায় কাটাতে চাইলেন কাজী দোদুল

  • Reporter Name
  • Update Time : ০১:০৯:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪
  • ১১৫ Time View

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর এবার উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে মাদারীপুর জেলার নবগঠিত ডাসার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ শুরু হয়েছে। উপজেলাকে দুর্নীতি মুক্ত রেখে এবং জীবনের বাকি সময়টুকু জনসেবায় কাটাতে চান কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল। আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাদারীপুরের নবগঠিত ডাসার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ঘোষনা করলেন কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল। তিনি ছাত্র জীবন থেকেই অসহায় হতদরিদ্র মানুষের পাশে থেকে জনসেবা মুলক কাজ করে আসছেন এবং অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ও ন্যায়ের পক্ষে যোদ্ধা হিসেবে কাজ করে আসছেন। নিজ অর্থে অসংখ্য অসহায় পরিবারের ছেলে-মেয়ের বিয়ে, বিভিন্ন রাস্তাঘাট,মসজিদ,মন্দির ও গীর্জায় প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি গোপালপুর ইউনিয়ন পরিষদের বারবার নির্বাচিত সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান,কালকিনি উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও নবগঠিত ডাসার উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান আহবায়ক কমিটির যুগ্ন আহবায়ক এর দ্বায়িত্ব পালন করছেন। কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল গোপালপুর ইউনিয়নের ঐহিত্যবাহি কাজী পরিবারের সন্তান। যে পরিবারে রয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উৎজীবিত সৈনিক। তার মধ্যে অন্যতম উপ-মহাদেশের প্রথম মুসলিম মহিলা চিকিৎসক অধ্যাপক ডাঃ জোহরা বেগম কাজী। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের পারিবারিক চিকিৎসক ছিলেন।
কাজী মামুদুল হাসান দোদুল চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষনা করে বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকে জনসেবা মুলক কাজ করেছি। কলেজে পড়াশুনা অবস্থায় ইউপি চেয়ারম্যান হওয়ার মধ্যেদিয়েই জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হই। ১৯৮৮ সালের প্রলয়ংকারি বয়াবহ বন্যা,আমাকে শিখিয়েছে জনসেবার মাঝে কি আত্মতিপ্তি পাওয়া যায়। চারিদিকে থৈ থৈ পানি, ছেলে সন্তান নিয়ে মাচা তৈরি করে বসবাস, পরিবারের সদস্যদের মুখে আহার দিতে শুধু দূরপানে তাকিয়ে থাকা,কে আসবে একমুঠো চাল নিয়ে। একবুক পানির মধ্যেদিয়ে চেষ্টা করেছি পরিবার গুলোকে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিতে। সে খানেই শিখেছি জনসেবা, আর জনসেবার আত্মতিপ্তি। উপজেলার সাধারণ মানুষ যদি আমাকে তাদের সেবা করার সুযোগ দেন তাহলে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক হিসেবে আমি আমার জীবনের বাকি সময়টুকু জনসেবায় কাটাতে চাই।

Tag :

Write Your Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Save Your Email and Others Information

About Author Information

Nazmul Haque

মাদারীপুরের শিবচরে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু

জীবনের বাকি সময়টুকু জনসেবায় কাটাতে চাইলেন কাজী দোদুল

Update Time : ০১:০৯:৩২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪

মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর এবার উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে মাদারীপুর জেলার নবগঠিত ডাসার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ শুরু হয়েছে। উপজেলাকে দুর্নীতি মুক্ত রেখে এবং জীবনের বাকি সময়টুকু জনসেবায় কাটাতে চান কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল। আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মাদারীপুরের নবগঠিত ডাসার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ঘোষনা করলেন কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল। তিনি ছাত্র জীবন থেকেই অসহায় হতদরিদ্র মানুষের পাশে থেকে জনসেবা মুলক কাজ করে আসছেন এবং অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী ও ন্যায়ের পক্ষে যোদ্ধা হিসেবে কাজ করে আসছেন। নিজ অর্থে অসংখ্য অসহায় পরিবারের ছেলে-মেয়ের বিয়ে, বিভিন্ন রাস্তাঘাট,মসজিদ,মন্দির ও গীর্জায় প্রতিষ্ঠা করেছেন। তিনি গোপালপুর ইউনিয়ন পরিষদের বারবার নির্বাচিত সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান,কালকিনি উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও নবগঠিত ডাসার উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান আহবায়ক কমিটির যুগ্ন আহবায়ক এর দ্বায়িত্ব পালন করছেন। কাজী মাহমুদুল হাসান দোদুল গোপালপুর ইউনিয়নের ঐহিত্যবাহি কাজী পরিবারের সন্তান। যে পরিবারে রয়েছে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উৎজীবিত সৈনিক। তার মধ্যে অন্যতম উপ-মহাদেশের প্রথম মুসলিম মহিলা চিকিৎসক অধ্যাপক ডাঃ জোহরা বেগম কাজী। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পরিবারের পারিবারিক চিকিৎসক ছিলেন।
কাজী মামুদুল হাসান দোদুল চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা ঘোষনা করে বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকে জনসেবা মুলক কাজ করেছি। কলেজে পড়াশুনা অবস্থায় ইউপি চেয়ারম্যান হওয়ার মধ্যেদিয়েই জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হই। ১৯৮৮ সালের প্রলয়ংকারি বয়াবহ বন্যা,আমাকে শিখিয়েছে জনসেবার মাঝে কি আত্মতিপ্তি পাওয়া যায়। চারিদিকে থৈ থৈ পানি, ছেলে সন্তান নিয়ে মাচা তৈরি করে বসবাস, পরিবারের সদস্যদের মুখে আহার দিতে শুধু দূরপানে তাকিয়ে থাকা,কে আসবে একমুঠো চাল নিয়ে। একবুক পানির মধ্যেদিয়ে চেষ্টা করেছি পরিবার গুলোকে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিতে। সে খানেই শিখেছি জনসেবা, আর জনসেবার আত্মতিপ্তি। উপজেলার সাধারণ মানুষ যদি আমাকে তাদের সেবা করার সুযোগ দেন তাহলে, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের সৈনিক হিসেবে আমি আমার জীবনের বাকি সময়টুকু জনসেবায় কাটাতে চাই।