ডিসি আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন-প্রতিমন্ত্রী ফরহাত

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১০:৫০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০১৯ | আপডেট: ১০:৫৪:অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৪, ২০১৯

একটি ভিডিওটিতে জামালপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) আহমেদ কবীরকে এক নারী অফিস সহকারীর সঙ্গে আপত্তিকর অবস্থায় দেখা যায়। এ ঘটনায় দেশজুড়ে তোলপাড়ের পর অশ্লীল ভিডিও। ডিসিকে ওএসডি (বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) করা হচ্ছে।

শনিবার (২৪ আগস্ট) রাত সাড়ে আটটায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

প্রতিমন্ত্রী ফরহাত হোসেন বলেন, ডিসি আহমেদ কবীরের বিরুদ্ধে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে এনেছি। আগামীকাল (রবিবার) তাকে ওএসডি করে আদেশ জারি করা হবে। জামালপুরে নতুন একজন যোগ দেবেন।

ওই অশ্লীল ভিডিওটি ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন মাধ্যমে শুক্রবার (২৩ আগস্ট) ভাইরাল হয়। বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) দিনগত রাতে খন্দকার সোহেল আহমেদ নামের এক ফেসবুক আইডি থেকে ভিডিওটি ছাড়া হয়। পরে ভিডিওটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ইউটিউবসহ নানা মাধ্যমে।

৪ মিনিট ৫৮ সেকেন্ডের ওই সিসিটিভি ফুটেজে জেলা প্রশাসক আহমেদ কবীরকে তার কার্যালয়ের এক নারী অফিস সহকারীর সঙ্গে অপত্তিকর অবস্থায় দেখা গেছে।

এ ব্যাপারে শুক্রবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে ডিসি বলেন, আমি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। আপনাদের কাছে একটু সময় চাই। আসল ঘটনা বের করতে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আপনারা আমাকে ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

ওই ভিডিওর সম্পর্কে আহমেদ কবীর বলেন, এটা সাজানো ভিডিও। দীর্ঘদিন ধরে একটি হ্যাকার গ্রুপ বিভিন্নভাবে আমাকে ভয় দেখিয়ে আসছে। তারা আমাকে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করছে। বিষয়টি আমি গুরুত্বের সঙ্গে নিইনি। এটি সাজানো ভিডিও, ফেক আইডি হতে প্রকাশ করেছে।

ভিডিওতে দেখানো কক্ষটি তার অফিসের বিশ্রাম নেওয়ার কক্ষ বলে নিশ্চিত করেন ডিসি। একই সঙ্গে ওই নারী তার কার্যালয়ে অফিস সহায়ক হিসেবে কর্মরত বলেও নিশ্চিত করেন।

সূত্র: অধিকার