সমাজে শান্তি ফিরিয়ে আনতে হলে কোরআন ও হাদিসের আলোকে সমাজ গঠন করতে হবে হাসান মাহমুদ চৌধুরী

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ২:৫৭ অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০১৯ | আপডেট: ৩:০৩:অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০১৯

মোঃ আলা উদ্দিনঃ চান্দগাঁও আবাসিক এলাকা কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও কাশেম নূর ফাউন্ডেশনের কো চেয়ারম্যান আলহাজ¦ হাসান মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, রমজান মাস তাকওয়া অর্জনের মাস। এ মাসে মহাগ্রন্থ আল কোরআন নাজিল হয়েছে বলে এ মাসের মর্যাদা বৃদ্ধি পেয়েছে। সুতরাং কোরআনের আলোকে সমাজ পরিচালনা করতে পারলে সমাজের মর্যাদাও বৃদ্ধি পাবে। তিনি আরো বলেন, অসহায়, দু:স্থ মানুষের সেবা ও তাদেও সার্বিক সহযোগিতা করলে মানুষের ধনসম্পদ বৃদ্ধি পায়। আমাদেরকে বেশী বেশী দান ও সাদকা দিতে হবে যেন দেশের অসহায় মানুষের কষ্ঠ দূর হয়। তিনি বলেন, মানব সেবার মাধ্যমে দেশের অসহায় মানুষের সেবা করার জন্য বিত্তশালীদের এগিয়ে আসতে হবে।

 

১৭ মে চট্টগ্রাম নগরীর বাদামতল মুন্সি বাড়ী জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির উদ্যোগে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

 

মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ নুরুল হক বীর প্রতিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন চান্দগাঁও ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন সাইফু, এ এন এফ এল প্রপার্টিজ লি: এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ¦ আহসানুল করীম এম জে এফ, আলহাজ¦ সোলায়মান আলম সেঠ, আশেকানে আওলিয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আনোয়ার হোসাইন প্রমুখ।

 

ইফতার মাহফিল ও আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, কাশেম নূর ফাউন্ডেশন অবহেলিত বঞ্চিত মানুষের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে। আলহাজ¦ হাসান মাহমুদের প্রচেষ্টায় চট্টগ্রামের অনেক মসজিদ ও মাদরাসা এবং ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান প্রাণ ফিরে পেয়েছে। সভাপতি নুরুল হক বীর প্রতিক হাসান মাহমুদরে প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, কাশেম নূর ফাউন্ডেশন ও হাসান মাহমুদের সার্বিক সহযোগিতায় আমরা মুন্সি বাড়ী জামে মসজিদ নির্মাণে সাহস পেয়েছি। কাশেম নূর ফাউন্ডেশনকে আল্লাহ কবুল করুন।