বরিশালে পীরের দানবাক্স পাহারায় বিষধর সাপ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১২:০৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৩, ২০১৯ | আপডেট: ১২:০৪:অপরাহ্ণ, মার্চ ২৩, ২০১৯

সাধারণত হিন্দু মন্দিরগুলিতে সোনাদানা বিষধর সাপ পাহারা দেয় বলে শোনা যায়। এমনকি চলচ্চিত্র ও গল্প উপন্যাসেও এ ধরনের ঘটনা দেখা যায়। তবে আউলিয়ার দরবার শরিফে সাপের উপস্থিতি এবারই প্রথম শোনা গেল। এ ঘটনায় গোটা এলাকায় রীতিমতো শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার রঙ্গশ্রী ইউনিয়নে আউলিয়াপুর গ্রাম। সেখানে বিখ্যাত দরবার শরিফের দানবাক্স পাহারা দিতে দেখা গিয়েছে এক বিশাল সাপকে। স্থানীয়দের দাবি, টাকা চুরি রুখতেই অলৌকিকভাবে সাপটি দানবাক্স পাহারা দিচ্ছে।

সোমবার দুপুর ১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত সাপটি তালাসহ দান বাক্সটি জড়িয়ে থাকে। ওই সময় কেউ দানবাক্সের দিকে এগিয়ে গেলে ছোবল মারার উদ্দেশ্যে সাপটিকে আক্রমণ করতে দেখা গিয়েছে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি দেখতে ঘটনাস্থলে ভিড় জমান গ্রামবাসী। মঙ্গলবারও উৎসুক গ্রামবাসী সাপটি দেখতে ভিড় জমান। তবে মঙ্গলবার থেকে সাপটিকে আর দেখা যায়নি।

স্থানীয়রা জানান, বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কের পাশেই বার আউলিয়ার দরবার শরিফ। প্রতিদিন এ পথে যাতায়াতকারীরা ছাড়াও স্থানীয় ও দূর-দূরান্ত থেকে অসংখ্য মানুষ দরবারের দানবাক্সে অর্থ দান করেন।

তবে অন্যান্য ধর্মস্থানের মতোই চোরেদের হাত থেকে রেহাই পায়নি আউলিয়ার দরবার শরিফও। গত বছর তিন থেকে চারবার দরবারের দানবাক্সের তালার নকল চাবি তৈরি করে অর্থ চুরি করা হয়েছে।

দরবার শরিফের ওয়াকফ স্টেটের প্রতিনিধি মৌলানা হেলালুজ্জামান জানান, কয়েক বছর ধরে স্থানীয় একটি চক্র দরবার শরিফের দানবাক্সের তালার নকল চাবি তৈরি করে অর্থ চুরি করছে। গত বছর একাধিকবার হানা দেয় চোরেরা। তার দাবি, চুরি ঠেকাতেই এমন অলৌকিক ঘটনা ঘটেছে। যাতে ওই অসাধু চক্রটি আর অর্থ চুরির কথা চিন্তাও না করে তাই দানবাক্স ঘিরে রেখেছে সাপ।

এদিকে বাকেরগঞ্জ থানা পুলিশের ওসি মো. মাসুদুজ্জামান জানান, ঘটনাটি শুনেছি। সাপটি নাকি বিষধর। তবে মঙ্গলবার আর সাপটিকে দেখা যায়নি। ভয়ের কিছু নেই। ওয়াকফ স্টেট হিসেবে ওই দরবার শরীফের যাবতীয় কার্যক্রম তদারকি ও দেখাশুনা করেন উপজেলা প্রশাসন।

[sharethis-inline-buttons]