প্রধানমন্ত্রীর ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে শিক্ষকরাই প্রধান চালিকা শক্তি- আ.জ.ম নাছির উদ্দীন

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৪:০২ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৭, ২০১৯ | আপডেট: ৪:০২:অপরাহ্ণ, মার্চ ১৭, ২০১৯

মোঃ ওমর ফারুক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ক্ষধামুক্ত,দারিদ্রমুক্ত উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে শিক্ষকরাই প্রধান চালিকা শক্তি। বাংলাদেশ আজ ধীরে ধীরে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হতে যাচ্ছে। আজ সর্বক্ষেত্রে বাংলাদেশের উন্নয়ন দৃশ্যমান। এই ধারা অব্যহত থাকলে আগামী ২০২৪ সালে বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালে বিশ্বের উন্নত দেশগুলির সারিতে গিয়ে দাড়াবে। বাংলাদেশের এই আভিষ্ঠ লক্ষ্য অর্জনে শিক্ষকদের ভূমিকাই হবে সবাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ।

যথাযথ ও বাস্তব সম্মত শিক্ষা দানের মাধ্যমে আজকের স্কুল কলেজে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদেরকে দক্ষ ও যোগ্যতা সম্পন্ন নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে তাঁরা এই গুরু দায়িত্ব পালন করে চলছেন।

বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নানামুখী উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে আজ বাংলাদেশ বঙ্গবন্ধুর সপ্নের সোনার বাংলায় পরিনত হতে যাচ্ছে। বাংলাদেশের উন্নয়ন আজ বিশ্ববাসী কর্তৃক স্বীকৃত। আজ বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ যে মর্যাদা ও সম্মানের অধিকারী হতে যাচ্ছে তা সম্ভব হচ্ছে কেবলমাত্র বঙ্গবন্ধুর কারণে।

পাকিস্তান আমলে বাংলাদেশের কোন মর্যাদা ছিল না। বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতিকে সংগঠিত করে ১৯৭১ সালের ৭ ই মার্চ ১৯ মিনিটের যে ভাষণ দিয়েছিলেন তাতে পাকিস্তানীদের ২৩ বছরের বঞ্চনার ইতিহাস তুলে ধরেছিলেন এবং বাঙ্গালী জাতিকে স্বাধীনতা অর্জনে উদ্বুদ্ধ করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ আজ ইউনেসকোর আন্তর্জাতিক প্রামান্য দলিল।

১৭ই মার্চ সকাল ১০ টায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস ২০১৯ উপলক্ষ্যে চট্টগ্রামের আমবাগান টাইগার পাস উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত, স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ সাইদুল কবিরের সভাপতিত্বে ও স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক বিমল কুমার আচার্য্য এর সঞ্চালনায় এক অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দীন এ সব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ১৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন হীরন, মহিলা কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, ১৩ ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক কায়সার মালিক,স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক ও স্কুলের অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ।এর আগে সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হয়ে সিটি মেয়র বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীরা সিনিয়র শিক্ষিকা উমা মজুমদারের নেতৃত্বে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন। এর পর সিটি মেয়র বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনের কেক কাটেন এবং কেক কাটার পর স্কুলের ধর্মীয় শিক্ষক আব্দুল হক আনোয়ারী উপস্থিত সবাইকে নিয়ে জাতির জনকের রুহের মাগফিরাত কামনা করে ফাতিহা ও বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করেন।