ভোলায় বালু ব্যবসায়ীর কাছে চাঁদা দাবীর অভিযোগ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৩:৫৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০১৯ | আপডেট: ৩:৫৯:অপরাহ্ণ, মার্চ ১৬, ২০১৯

কামরুজ্জামান শাহীন, ভোলা প্রতিনিধি: ভোলা চরফ্যাসনের শশীভূষণ বাজারের বালু ঘাটে বালুভর্তি জাহাজ থেকে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। দুর্বৃত্তদের ধার্যকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় ৩দিন ধরে জাহাজ থেকে বালু আনলোড করা বন্ধ দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বালু ব্যবসায়ী জলিল মাঝি এমন অভিযোগ করেছেন।

জলিল মাঝি জানান, তিনি দীর্ঘদিন ধরে ভোলার শশশীভূষণ বাজার বালুঘাটে বালুর ব্যবসা করছেন। তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম মেসার্স রসুলপুর ট্রেডার্স। বেশ কিছুদিন ধরে স্থানীয় জসিম পন্ডিত ও আফসার পন্ডিতের নাম ভাঙ্গীয়ে স্থানীয় হুমায়ুন কবির, জসিম মুন্সি ও ওসমানরা তার কাছে বালুর ফুট প্রতি ১ টাকা করে চাঁদা দাবী করে আসছে। এই টাকা দিতে অস্বীকার করায় ৩দিন ধরে বালু নিয়ে ঘাটে অপেক্ষায় থাকা জাহাজ থেকে বালু আনলোড করতে দিচ্ছেনা। ফলে মেসার্স রসুলপুর ট্রেডাসের ব্যবসা বন্ধ হয়ে গেছে।

প্রায় ৭/৮ মাস আগেও একই ভাবে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবসা বন্ধ হয়ে যায়। কিছুদিন বন্ধ থাকার পর পুনরায় ব্যবসা শুরু করলে পুরনো দাবী নতুন করে সামনে আসে।

জলিল মাঝির অভিযোগ, ইতিপূর্বে বিষয়টি শশীভূষণ থানাকে জানিয়েও কোন সুরাহা মিলেনি। বরং থানা পুলিশকে জানানোর পর দুর্বৃত্তরা ড্রেজার মালিক রিপনকে জাহাজ থেকে বালু আনলোড থেকে বিরত থাকতে হুমকী দিয়েছে। দুর্বৃত্তদের হুমকীতে জলিল মাঝির মেসার্স রসুলপুর ট্রেডার্সের বালুর ব্যবসা বন্ধ হয়ে আছে। নিরুপায় হয়ে জলিল মাঝি শুক্রবার(১৫মার্চ) চরফ্যাসন প্রেসক্লাবে হাজির হয়ে স্থানীয় সংবাদ কর্মীদের বিষয়টি অবহিত করেন।

অভিযোগ প্রসঙ্গে জসিম ও আফসার পন্ডিতের মুঠো ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য জানা যায়নি।
শশীভূষণ থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম জানান, এই বিষয়ে কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।