বরিশালে আয়কর মেলায় উৎসবমুখর পরিবেশ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৭:২০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৮ | আপডেট: ৭:২০:অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৭, ২০১৮

বরিশাল : বিভাগীয় শহর বরিশালের অশ্বিনী কুমার হলের আয়কর মেলা প্রাঙ্গনে করদাতা ও রিটার্ন দাখিলকারীদের ভিড়ে মেলাস্থলে উৎসব মেলায় পরিনত হয়েছে।

 

আয়কর মেলার প্রথম চার দিনে বরিশালে প্রায় ৩ কোটি টাকা কর আদায় করা হয়েছে। পাশাপাশি রিটার্ন জমা দিয়েছেন ৭ হাজার ৩শত ৫৬জন করদাতা। নতুন ‘ই- টিন’ এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ৩শ’৬৯জন।

 

শনিবার (১৭ নভেম্বর) সকালে এ তথ্য জানান বরিশাল কর অঞ্চলের উপ কর কমিশনার (প্রশাসন) মো: আবুল কালাম আজাদ।

 

আবুল কালাম আজাদ বলেন, প্রতিদিন মেলায় করদাতাদের উপচেপড়া ভিড় থাকে। তাছাড়া গতবারের চেয়ে এবার আয়কর দাতারাও অনেক সচেতন হয়েছেন। তাই প্রথম চারদিনে মেলায় ২ কোটি ৯০ লক্ষ ৩৩ হাজার ৩৮২ টাকা কর আদায় করা হয়েছে। এছাড়াও  ৫৫ হাজার ৮শ’ ৪৯ জনকে সেবা প্রদান করেছেন কর অঞ্চলের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

 

তিনি আরো জানান, মেলার প্রথম দিনে ৫৫ লক্ষ ৫৪ হাজার ৩৫৬ টাকা কর আদায় করা হয়েছে। পাশাপাশি রিটার্ন জমা দিয়েছেন ১ হাজার ৩শ’ ৩৮জন করদাতা। নতুন ‘ই- টিন’ এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ৮৫জন। সেবা গ্রহন করেছে ৩ হাজার ২শ’ ৮ জন।

 

দ্বিতীয় দিনে ৫৯ লাখ ৫৬ হাজার ৩৫৬ টাকা কর আদায় হয়েছে। মেলায় রিটার্ন জমা দিয়েছেন ১ হাজার ৩শ’ ৪৫ জন করদাতা। নতুন ‘ই- টিন’ এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ১১৬জন। সেবা গ্রহন করেছে ১২ হাজার ৩শ’ ৪১ জন।

 

তৃতীয় দিনে ৯৫ লাখ ১৩ হাজার ৪৬৮ টাকা কর আদায় হয়েছে। মেলায় রিটার্ন জমা দিয়েছেন ২ হাজার ২শত ২৯ জন করদাতা। নতুন ‘ই- টিন’ এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ১১৬জন। সেবা গ্রহন করেছে ২৩ হাজার ৮শ’ ৬৩ জন।

 

চতুর্থ দিনে ৮০ লাখ ৯ হাজার ৩৭১ টাকা কর আদায় হয়েছে। মেলায় রিটার্ন জমা দিয়েছেন ২ হাজার ৪শত ৪৪ জন করদাতা। নতুন ‘ই- টিন’এর মাধ্যমে করদাতা হয়েছেন ৫০জন। সেবা গ্রহন করেছে ১৬ হাজার ৪শ’ ৩৭ জন।

 

বরিশাল কর অঞ্চল কর কমিশনার মকবুল হোসেন পাইক  জানান, মেলায় করদাতাদের মাঝে ব্যাপক সাড়া লক্ষ্য করা যাচ্ছে। প্রতিদিন নতুন করদাতা সৃষ্টি হওয়ার পাশাপাশি রিটার্ন জমা দেওয়ার জন্য পুরাতন করদাতাদের ভিড় বাড়ছে।

 

উল্লেখ্য, গত ১৩ নভেম্বর (মঙ্গলবার) থেকে বরিশাল অশ্বিনী কুমার হলে শুরু হয়েছে সাত দিন ব্যাপী এই আয়কর মেলা প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত চলেছে। মেলায় ২০ টি স্টলের মাধ্যমে করদাতাদের সেবা প্রদান করা হচ্ছে।