আওয়ামী ঘাঁটিতে আশা ছাড়ছে না বিএনপিও

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৮:০৭ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮ | আপডেট: ৮:০৭:পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮
আওয়ামী ঘাঁটিতে আশা ছাড়ছে না বিএনপিও

ভোটের রাজনীতিতে অন্যতম বৈচিত্র্যের আসন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১। আওয়ামী লীগের পাঁচ ও জাতীয় পার্টির তিনবারের বিপরীতে একবারও জয় পায়নি অন্যতম বড় দল বিএনপি। এ অবস্থায়, এবারের নির্বাচনে চমক দেখাতে ‘সবকিছু’ করতে চায় সংসদের বাইরে থাকা দলটি। তবে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কারণেই আসন দখলে রাখা নিয়ে ‘নির্ভার’ ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। আর ভোটাররা বলছেন, জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে গুরুত্ব পাবে হাওরবেষ্টিত এলাকার উন্নয়ন অঙ্গীকার।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার হাওরবেষ্টিত উপজেলা নাসিরনগর নিয়ে গঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া-এক আসন। ভোটের মাঠে বরাবরই আওয়ামী লীগের আধিপত্য।

পরিসংখ্যান বলছে, ১০টি সংসদ নির্বাচনের মধ্যে, এ আসনে পাঁচবারই জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ। ১৯৮৮ সালের নির্বাচনসহ জাতীয় পার্টি জয় পেয়েছে তিনবার। বাকি দু’বার জিতেছেন স্বতন্ত্রপ্রার্থী।

এ অবস্থায়, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে তৎপরতা বেড়েছে রাজনৈতিক দলগুলোর। কৌশলী প্রচারণা ও গণসংযোগে নেমেছেন মনোনয়ন প্রত্যাশিরা। ভোটের হিসাবে জাতীয় পার্টির অবস্থান শক্ত থাকলেও তাদের বিবেচনায় রাখতে হচ্ছে মহাজোট। এক্ষেত্রে, নিজেদের প্রার্থী দিয়েই আধিপত্য ধরে রাখার ব্যাপারে আশাবাদী ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক সুজিত কুমার চক্রবর্তী বলেন, ‘নাসিরনগরের ১৩ টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সুসংগঠিত আছে। আগামী ডিসেম্বরে নির্বাচন হলে আমরা তার প্রমাণ পাব। জননেত্রী শেখ হাসিনা যাকেই মনোনয়ন দেবেন, আমরা তাকেই বিজয়ী করে এটা যে আওয়ামী লীগের ঘাঁটি- সেটা প্রমাণ করে দেব।’

ভোটের রাজনীতিতে এ আসনে বরাবরই পিছিয়ে অন্যতম বড় দল বিএনপি। ১৯৯৬ সালের ফেব্রুয়ারির বিতর্কিত নির্বাচনেও স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে হেরেছে দলটি। তবে আগামী নির্বাচনে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া স্থানীয় নেতারা।

নাসিরনগর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম-সম্পাদক আজিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, ‘যদি আমাদের দল নির্বাচন করে এবং নমিনেশন দেয়, তাহলে বয়জ্যেষ্ঠ্য নেতাকেই আমরা নির্বাচিত করবো। একক প্রার্থী সৈয়দ একরামুজ্জামান। আমাদের বিকল্প কোনো প্রার্থী নেই।’

শুধু রাজনৈতিক দল নয়, ভোটের আলোচনা চলছে সাধারণ মানুষের মাঝেও।

একটি পৌরসভা ও ১৩ ইউনিয়নের ব্রাহ্মণবাড়িয়া-এক আসনে দুই লাখ আট হাজার ভোটারের মধ্যে নারী-পুরুষের সংখ্যা প্রায় সমান।-সময় টিভি অনলাইন