রাজাপুরে মাদ্রসার দেয়ালে আল্লাহু লেখায় শিক্ষার্থীদের মারধর

প্রকাশিত: ৭:২১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৮ | আপডেট: ৭:২১:অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০১৮

ঝালকাঠির রাজাপুরের কেওতা ঘিগড়া সিনিয়র মাদ্রাসার সহকারি শিক্ষক সত্যজিৎ মাতুব্বর’র বিচারের দাবীতে শিক্ষার্থীরা ক্লাশ বর্জন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
রোববার দুপুরে সরেজমিন গেলে পঞ্চম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সানজিদা, আখি আক্তার, আবিদ, বুশরা, সিয়াম ও ইসরাতসহ শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলে, গতকাল শনিবার আমাদের প্রতিষ্ঠানের পঞ্চম শ্রেনির শিশু শির্ক্ষীরা আরবীতে আল্লাহু শব্দটি বড় অক্ষরে লিখে ক্লাশ রুমের দেয়ালে লাগিয়ে রাখলে ঐ শিক্ষক ক্লাশ নিতে গিয়ে আল্লাহু শব্দটি লাগানো দেখে শিক্ষার্থীদের দার করিয়ে এসব লিখছো কেন বলেই তাদেরকে বেত্রাঘাত শুরু করেন।
মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেনীর শিক্ষার্থীদের কাছে জানতে চাইলে তারা বলে, আমরা ক্লাশ রুমে বড় অক্ষরে আল্লাহু শব্দটি লিখে দেয়ালে লাগিয়ে রাখি তা দেখে অন্য শিক্ষকরা কিছু বলেননি, কিন্তু আমাদের সত্যজিৎ স্যারে এটা দেখেই আমাদেরকে জিজ্ঞাসা করে এবং আল্লাহু শব্দটির উপরে বেত দিয়ে খুচিয়ে বলে এটা লিখছো কি, কেন লিখছো যারা লিখছো তারা দাড়াও। আমরা দাড়ালেই আমাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আমাদেরকে ৪টি করে পিঠান দেন।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক সত্যজিৎ মাতুব্বরের কাছে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি অস্বিকার করে বলেন ওরা ক্লাশ রুম নোংরা করার কারনে আমি শুধু দুএকটি চড় থাপ্পড় দিয়ে ওদের ভিতরে ভয় তৈরি করেছি। এছাড়া আরও যদি কিছু করে থাকি তাহলে আমার পিন্সিপাল আছে তা সে দেখবে।
এ বিষয়ে মাদ্রাসার অধ্যক্ষের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “আমি বিষয়টি শুনেছি এবং শিক্ষার্থীরা আমার কাছে এলে আমি তাদেরকে শান্ত করে ক্লাশে ফিরে যেতে বলেছি আর এ বিষয়ের সত্যতা পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিব।
এ বিষয়ে উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা আফরোজা বেগম পারুল বলেন, আমি বিষয়টি শুনে আমার উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজারকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠিয়েছি।