দিনাজপুরে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার

এন.আই.মিলন এন.আই.মিলন

দিনাজপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৮:২৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১২, ২০১৮ | আপডেট: ৮:২৫:অপরাহ্ণ, জুলাই ১২, ২০১৮
দিনাজপুরে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার

 দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ১ গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ, স্বামী রায়হান পলাতক, পরিবারের দাবী হত্যা করে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলার শতগ্রাম ইউনিয়নের ঝাড়বাড়ীহাট এলাকার বাসিন্দা খানসামা উপজেলার ধর্মপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সিয়াবুর রহমান শাহীন মাস্টারের পুত্র আবু রায়হানের স্ত্রী সানজিদা আক্তার সাথী (২১)’র ঝুলন্ত লাশ বাড়ী ১টি ঘর হতে ১২ জুলাই রাতে পুলিশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরন করেছে। নিহত সাথী দিনাজপুর শহরের রাজবাটি এলাকার মৃত সামসুল হকের কন্যা ও ১ পুত্র সন্তানের জননী।

শতগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান ডাঃ কে.এম.কুতুব উদ্দিন জানান, দুপুরের পর বাড়ীর সকলের চোখকে ফাঁকি দিয়ে বাড়ীর একটি ঘরের স্বরের সাথে গলায় ওড়না প্যাচিয়ে ফাঁস দিয়ে সাথী আত্মহত্যা করে। ৩ বছরের শিশু বাচ্চা মোছাঃ রোহান মায়ের জন্য কাঁদতে থাকলে অনেক খোজাখুজির পর তাকে ওই ঘরে ফাঁসিতে ঝুলতে দেখে পুলিশকে সংবাদ দেওয়া হয়।

সাথীর মা মালেকা, বোন সুমি, দুলাভাই নুরল ইসলাম, বোন শারমিন আক্তার রাতে ঘটনাস্থলে পৌচে এলাকাবাসীর সামনে পুলিশের নিকট অভিযোগ দিয়ে বলেন, সাথীকে হত্যা করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। এসময় তারা জানায়, প্রায় চার বছর আগে প্রেমের সুত্রধরে রায়হান সাথীকে পালিয়ে নিয়ে এসে বিয়ে করে। কিছুদিন পর হতে শাশুড়ী ও স্বামী তাকে নির্যাতন শুরু করে। বিকালে ঘটনাটি ঘটলেও তাদেরকে সন্ধ্যার পরে সংবাদ দেওয়া হয়।

সংবাদ পেয়ে বীরগঞ্জ থানার এসআই মশিউর রহমান ও এসআই আল আমিন ঘটনাস্থলে পৌচে সুরতহাল লিপিবদ্ধ করে মৃত্যুর প্রকৃত কারন উদঘাটনের জন্য সাথীর মৃতদেহ দিনাজপুর এম রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করে।

পুলিশ জানায়, থানায় অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে। ভিসারা রির্পোট পেলেই জানা যাবে হত্যা না আত্মহত্যা। ঘটনার পর হতে স্বামী আবু রায়হান পলাতক রয়েছে।