খাবারে নির্ভর করে শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১১:৪১ অপরাহ্ণ, জুন ১৫, ২০১৮ | আপডেট: ১১:৪১:অপরাহ্ণ, জুন ১৫, ২০১৮
খাবারে নির্ভর করে শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ

শিশুর জন্য জীবনের প্রথম বছরগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে প্রথম তিন থেকে পাঁচ বছর। এই বছরগুলোতে দ্রুত শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ, স্নায়ুতন্ত্রের উন্নয়ন ও মাইলিনেশন হয়। এই সময়টাতে শিশুর মস্তিষ্কের ওজন বয়ষ্কদের মস্তিষ্কের ওজনের ২৫ শতাংশ।

তাই জীবনের প্রথম বছরগুলোর যত্ন ও ভালবাসা অত্যন্ত জরুরি এবং তাদের সারা জীবনের ওপর প্রভাব ফেলে| শিশুর মানসিক বিকাশ নির্ভর করে তার আশেপাশের পরিবেশ ও অন্যদের আবেগপূর্ণ আচরণ দ্বারা।

এই মস্তিষ্কের কোষগুলোর গঠন হয় শিশু যখন মাতৃগর্ভে থাকে তখন থেকেই। মস্তিষ্কের বিকাশ নির্ভর করে তার কোষের উপর। একটি শিশু যখন জন্মগ্রহণ করে তখন তার মস্তিষ্কে দেড় কোটি কোষ থাকে।

গবেষণা বলছে, শিশুরা কি খাবার খায় তার ওপর তাদের মস্তিষ্কের বিকাশ নির্ভরশীল। সম্প্রতি আমেরিকান অ্যাকাডেমি অব পেডিয়াট্রিকস থেকে প্রকাশিত ‘জার্নাল পেডিয়াট্রিকসের’ এক প্রতিবেদনে বলা হয়, শিশুর জন্মের এক হাজার দিনের মধ্যে তারা যেসব খাবার খায় তার ওপর মস্তিষ্কের বিকাশ নির্ভর করে।

গবেষকরা বলছেন, প্রোটিন, জিঙ্ক, আয়রন, ভিটামিন ও পুষ্টিসমৃদ্ধ ফ্যাটি অ্যাসিড শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশে সহায়ক। খাবারে এসব উপাদান না থাকলে শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ ব্যহত হয়।

শিশুর জন্মের পর মায়ের দুধই তার প্রধান খাবার। ছয় মাস পর তাকে শক্ত খাবার খাওয়াতে হয়। কোননো কোননো ক্ষেত্রে এর কিছু আগেও শক্ত খাবার দেয়া যেতে পারে। তবে তা অবশ্যই চার মাস বয়স হওয়ার আগে নয়।

শক্ত খাবার খাওয়া শুরু করলে শিশুকে পুষ্টি, ভিটামিন ও খনিজযুক্ত খাবার যেমন, মাংস, ফল ও শাকসবজি খাওয়াতে হবে।

গবেষকরা বলছেন, এক থেকে দুই বছরের মধ্যে শিশুদের মস্তিষ্কের দ্রুত বিকাশ ঘটে। এ কারণে এই সময় অবশ্যই তাদের পুষ্টিকর খা্বার খাওয়াতে হবে। তারা আরও বলছেন, শিশুর জন্মের এক হাজার দিনের মধ্যে যদি তাদের মাংস, ফলমূল এবং শাকসবজি পরিমান মতো না খাওয়ানো হয়; তাহলে তাদের পুষ্টির ঘাটতি পূরণ হয় না।তাই শিশুদের মস্তিষ্কের বিকাশে পুষ্টিকর খাবার নির্দিষ্ট পরিমাণে খাওয়াতে হবে।