কাউখালীতে স্ক্যাচ কার্ড প্রতারণায় লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৪:১৮ অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০১৮ | আপডেট: ৪:১৮:অপরাহ্ণ, মে ১৮, ২০১৮
কাউখালীতে স্ক্যাচ কার্ড প্রতারণায় লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে

কাউখালী (পিরোজপুর) প্রতিনিধি ॥

পিরোজপরের কাউখালীতে স্ক্যাচ কার্ড প্রতারণার মাধ্যমে নিন্মমানের পণ্যসামগ্রী দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা এম.আর ইন্টারন্যাশনাল গ্রুপ। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে সাধারণ মানুষকে প্রতারণা করার নব কৌশল হিসেবে বেছে নিয়েছে স্ক্যাচ কার্ড। যে কার্ড ঘষলে পাওয়া যাচ্ছে জগ, গ্লাস, প্লাস্টিকের চেয়ার, ফ্লাক্স, বৈদ্যুতিক ফ্যান, মোবাইল ফোনসহ বিভিন্ন নিন্মমানের পণ্য সামগ্রী।

গ্রাহকরা ১০০ টাকার স্ক্যাচ কার্ড কিনলে ঘষে যে পণ্যটি পাবে সেই পণ্যটি আবার এম.আর গ্রুপের অফিসের কাছে ১৫০০ টাকা জমা দিয়ে ওই পণ্যটি ছাড়াতে হয়। তাতে করে গ্রাহকরা ১৫০০ ও স্ক্যাচ কার্ড ক্রয়বাবদ ১০০ টাকা অর্থাৎ মোট ১৬০০ টাকায় ৩শ থেকে ৪শ টাকার মালামাল পাওয়া যাচ্ছে বলে গ্রাহকরা অভিযোগ করেন। ২/১ জন গ্রাহক মাত্র ভালমানের পণ্য পেলেও শতকরা ৯৮ ভাগ গ্রাহকই নিন্মমানের জমা দেওয়া টাকার অর্ধেক মূল্যমানেরও পণ্য পাচ্ছে না বলে জানান। এম.আর গ্রুপে ৮ জন এজেন্টের মাধ্যমে ইজিবাইকে করে গ্রামে গ্রামে মাইকিং করে এগুলো সহজ সরল ও নারীদের আকৃষ্ট করে ওই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 

শহরের মানুষ সচেতন বিধায় শহরে এই ব্যবসা পরিচালনা করছেন না কারণ প্রতারণা সহজেই ধরা পড়ার ভয়ে। এ ব্যাপারে এম.আর ইন্টারন্যাশনাল গ্রুপের কাউখালী এলাকার ম্যানেজার তানভীর হোসেনের সাথে কথা হলে তিনি জানান, এলইডি টিভিসহ আপাদত উন্নত মানের মালামাল সীমিত থাকায় শহরের মধ্যে কোন প্রচার প্রচারণা কিংবা স্ক্যাচ কার্ড বিক্রয় করা হচ্ছে না। প্রতারণার বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করে বলেন, তার অফিসে এসে দেখে যেতে কোন প্রতারণা করা হচ্ছে কিনা।