পোনাবালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থী আবুল বাশার খান বিজয়ী

প্রকাশিত: ১০:১৭ পূর্বাহ্ণ, মে ১৬, ২০১৮ | আপডেট: ১০:১৯:পূর্বাহ্ণ, মে ১৬, ২০১৮
পোনাবালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আ’লীগ সমর্থিত প্রার্থী আবুল বাশার খান বিজয়ী

ঝালকাঠি সদর উপজেলার বহুল আলোচিত পোনাবালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী আবুল বাশার খান বিজয়ী হয়েছে। তিনি নৌকা প্রতিকে পেয়েছেন ৭হাজার ৭৪০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী ও সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ ওয়ারেচ আলী খান ধানের শীষ প্রতিকে পেয়েছেন ৪০৯ ভোট। অপর প্রতিদ্বন্দ্বিরা হলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মোঃ নাসির উদ্দিন মৃধা হাতপাখা প্রতিকে পেয়েছেন ২১১ ভোট , আওয়ামীলীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ আরিফুর রহমান জামাল রজনীগন্ধা প্রতিকে পেয়েছেন ৯৩ ভোট এবং বিএনপি নেতা (বিদ্রোহী প্রার্থী) আব্দুল ওয়াহেদ জোমাদ্দার আনারস প্রতিকে পেয়েছেন ৬৩।
সাধারন সদস্য পদে ১ নং ওয়ার্ড প্রতাপমহলে মোঃ নান্না মিয়া (তালা), ৩নং ছিলারিশ ওয়ার্ডে মোঃ মনির হোসেন ব্যাপারী (টিউবওয়েল), ৫ নং দেউরী ওয়ার্ডে মোঃ মশিউর রহমান ( ফুটবল), ৮ নং রাজাপুর ওয়ার্ডে মোঃ শাহীন তালুকদার (ফুটবল), ৯ নং নুরুল্লাপুর ওয়ার্ডে মোঃ আব্দুল বারেক হাওলাদার (বৈদ্যুতিক পাখা) বেসরকারীভাবে বিজয়ী হয়েছেন।
এদিকে সদর উপজেলার শেখেরহাট ইউনিয়নের ৩ নং মির্জাপুর ওয়ার্ডের উপ নির্বাচনে মো. তকদির হোসেন (মোরগ) বিজয়ী হয়েছেন। সীমানা জটিলতার কারণে দুই দফায় এ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন বন্ধ হওয়ার পরে সব জটিলতা কাটিয়ে মঙ্গলবার ১৫মে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল ৮টায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। ভোট গ্রহণ শুরু হলে নয়টি কেন্দ্রেই নারী ও পুরুষ ভোটারদের উপস্থিতিতে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়। এদের মধ্যে নারী ভোটারদের উপস্থিতি ছিল নজরকাড়া।
এর আগে ঝালকাঠি সদর উপজেলার পোনাবালিয়া ইউপি নির্বাচনে কারচুপি ও কেন্দ্র দখলের অভিযোগ করে নির্বাচন বর্জন করেছে বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষ প্রতিকের প্রার্থী মোঃ ওয়ারেচ আলী খান। পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানিে রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে আবেদন করেন তিনি। পরে তিনি ঝালকাঠি শহরের কামারপট্টিস্থ কার্যালয়ে মঙ্গলবার দুপুর ১টায় এক সংক্ষিপ্ত সংবাদ সম্মেলন করে নির্বাচন বর্জনের ঘোষণা দেন।
রিটার্নিং কর্মকর্তা বরাবরে বেলা ১১ টা ৭ মিনিটে দেয়া আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন,ঝালকাঠি সদর উপজেলার পোনাবালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আবুল বাশার খান’র কর্মী সমর্থক ও বহিরাগত ক্যাডারদের মাধ্যমে ধানের শীষের পোলিং এজেন্টদেরকে সকল কেন্দ্র থেকে মারধর করে বের করে দেয়। সকল ভোট কেন্দ্র দখল করে চেয়ারম্যান পদের ব্যালট ছিনিয়ে নিয়ে প্রকাশ্যে নৌকা মার্কায় সিল দিয়ে ব্যালট বাক্সে ঢুকায়। এ ব্যাপারে তাৎক্ষনিকভাবে প্রিজাইডিং অফিসারসহ কর্তব্যরত সকল কর্মকর্তাকে অবহিত করা হলেও কোন ব্যবস্থা নেয়নি। তাই আবেদনের মাধ্যমে স্থানীয় সরকার বিধিমালা অনুযায়ী পোনাবালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন স্থগিত ও বাতিল করে নির্বাচনের নতুন দিন ধার্য্য করার আবেদন জানানো হয়।
এছাড়া সংক্ষিপ্ত সাংবাদিক সম্মেলনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ওয়ারেচ আলী খানের জ্যেষ্ঠপুত্র জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুব আলম খান জানান, দেউরী কেন্দ্রে কোন ভোটার নেই। কেন্দ্রের ভিতরে বসে বহিরাগতরা একটি সিন্ডিকেট করে চেয়ারম্যান পদে নৌকা, সংরক্ষিত সদস্য পদে বক ও সাধারন সদস্য পদে ফুটবল মার্কায় সিল দিয়ে বাক্সে ঢুকায়। এছাড়াও চেয়ারম্যান প্রার্থীর ব্যালট রেখে বাকী সদস্য পদের দুটিতে ভোটারদের সিল দিতে দেয়া হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, নির্বাচনী মাঠে ওয়ারেচ আলী খান সকালে একবার এসে ঘুরে গেলে পরবর্তিতে আর দেখা যায় নি। তার এজেন্টদেরও স্বাক্ষর না দিয়ে বাইরে যেতে বলেছে। রাতেই আমাদের ২ সক্রিয় কর্মী ও বিএনপি নেতাকে আটক করেছে পুলিশ বলেও জানান তিনি।
এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক শামীম তালুকদার, সদর উপজেলা যুবদল সভাপতি শওকত হোসেন খোকন মল্লিক, সাধারন সম্পাদক আনিচুর রহমান খান পান্নু, শহর যুবদল নেতা জহিরুল ইসলাম বাদলসহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার মোঃ শাহিন শরীফ জানান, নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ হয়েছে। কোথাও কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।