ঢাকা, ||

৭জঙ্গির লাশ আঞ্জুমানে হস্তান্তর

মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর মিরপুরের জঙ্গি আস্তানা থেকে উদ্ধার হওয়া সাত জনের লাশ আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের অধ্যাপক সোহেল মাহমুদ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আজ সকালে জঙ্গি আস্তানা থেকে উদ্ধার হওয়া ৭ জনের লাশ আঞ্জুমান মফিদুল ইসলামে হস্তান্তর করা হয়েছে। সাতজনের মধ্যে আব্দুল্লাহ ছাড়াও তার দুই স্ত্রী নাসরিন ও ফাতেমা এবং দুই সন্তান ওসামা ও ওমর রয়েছে। তবে বাকি দুইজনের নাম জানা নেই। প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (৫ সেপ্টেম্বর) মিরপুরের দারুস সালাম থানার ভাঙা দেয়াল এলাকার জঙ্গি আস্তানায় আত্মঘাতি বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয। এ ঘটনায় ওই বাড়িটির পঞ্চম তলার রুমের ফ্ল্যাটের তিনটি রুম থেকৈ সাতজনের লাশ উদ্ধার করা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, এগুলো জঙ্গি আবদুল্লাহ, তার দুই স্ত্রী, দুই সন্তান ও দুই সহযোগীর। তবে লাশগুলো এমনভাবে পুড়েছে যে কোনটা কার লাশ তা শনাক্ত করা যায়নি।জানা গেছে, ২০০৫ সালে জেএমবির সঙ্গে যুক্ত হয় জঙ্গি আবদুল্লাহ। ২০১৩ সালে সে নব্য জেএমবির সঙ্গে যুক্ত হয়। তার বাসায় জঙ্গিদের আশ্রয় দেওয়া হতো। এছাড়া সে জঙ্গিদের অর্থের যোগান দিয়েছে। ওই বাসায় সরোয়ার জাহান, তামিম চৌধুরীর যাতায়াত ছিল। সরোয়ার-তামিম গ্রুপের একজন শুরা সদস্য কারাগারে বন্দি আছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এই আবদুল্লাহর নাম জানতে পেরেছিল র‌্যাব। বছর খানেক ধরেই তারা আবদুল্লাহকে খুঁজছিল। অবশেষে তাকে খুঁজে পাওয়া যায়। ফলে বড় ধরনের বিপর্যয় থেকে দেশ ও জাতিকে বাঁচানো সম্ভব হয়। তার বাসায় যে পরিমাণ বিস্ফোরক ছিল তা দিয়ে বড় ধরেন নাশকতা চালানো সম্ভব হতো।
Top