ঢাকা, ||

পাওনা টাকার চাওয়ায় নৃত্যশিল্পীকে স্বামীর হত্যা

রাজধানীর উত্তরায় পাওনা টাকার জেরে জান্নাতুল ফেরদৌস মাধুরী (২৭) নামে এক নৃত্যশিল্পীকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার বিকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে লাশের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। তার মা মর্জিনা বেগমের অভিযোগ, পাওনা টাকা চাওয়ার জেরে মাধুরীকে তার স্বামী পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। মর্জিনা বেগম বলেন, মাধুরীর স্বামী তসলিম সিরাজের সঙ্গে সোনিয়া নামে এক নারীর অবৈধ সম্পর্ক ছিল। মাধুরী তা জেনে যাওয়ায় তাদের মধ্যে মনোমালিন্য দেখা দেয়। তিনি আরও বলেন, ২০১০ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত মাধুরীর কাছ থেকে এক কোটি ২০ লাখ টাকা নিয়েছে তসলিম। মর্জিনা বেগম দাবি করেন, মেয়ের সুখের জন্য বনশ্রীর একটি ফ্ল্যাট ৪৫ লাখ টাকায় বিক্রি করে তসলিমকে দেন। পরকীয়া জানার পর মাধুরী ওই টাকা ফেরত দেয়ার জন্য তসলিমকে চাপ দেন। মর্জিনা বেগম আরও বলেন, সোমবার তিনি উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টরের ১৫ নম্বর রোডের ৩২ নম্বর বাড়ির পঞ্চম তলায় মাধুরীর বাসায় যান। সেখানে তিনি সোনিয়াকে দেখতে পান। ওই দিন তিনিও টাকার জন্য তসলিমকে চাপ দিয়ে আসেন। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তিনি খবর পান মাধুরী আত্মহত্যা করেছে। তিনি বলেন, তার মেয়ে আত্মহত্যা করেছে তা তিনি বিশ্বাস করেন না। মাধুরীকে তসলিম পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। তিনি জানান, ২০১০ সালে পরিবারকে না জানিয়ে তসলিমকে বিয়ে করে মাধুরী। নৃত্যশিল্পী মাধুরী স্টেজশো করতেন। উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই দেলোয়ার হোসাইন জানান, পারিবারিক ঝগড়া-বিবাদ বা অন্য কারও প্ররোচনায় মাধুরী আত্মহত্যা করেছেন কিনা তা প্রাথমিকভাবে জানা যায়নি। ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে লাশ পাঠানো হয়েছে।
Top