খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে গিয়ে সরকারের রোষানলে পড়তে চায় না জামায়াত

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ১১:০৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৮ | আপডেট: ১১:০৮:অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০১৮
খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে গিয়ে সরকারের রোষানলে পড়তে চায় না জামায়াত

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে ২০ দলের নেতাকর্মীরা রাজপথে নামলেও মাঠে নেই জামায়াত ইসলামী। উনিশ বছর ধরে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটে থাকা জামায়াত খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবিতে কেন আন্দোলনে নেই তা নিয়ে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

তবে জামায়াতের একটি সূত্র থেকে জানাগেছে, দলটি বিএনপির আন্দোলনে যোগ দিয়ে সরকারের রোষাণলে পড়তে চায় না। কারণ, খালেদা জিয়ার সাজা বিএনপির দলীয় ইস্যু। তাই বিএনপির আন্দোলনে যোগ দিয়ে সরকারের সঙ্গে নতুন করে বিরোধে জড়াতে রাজি নয় জামায়াত।

এদিকে জোটের অন্যতম শরিক এ দলটিকে দলের সংকটময় মুহূর্তে পাশে না পেয়ে ক্ষুব্ধ বিএনপি নেতাকর্মীরা। খালেদার জিয়ার মামলার রায়ের আগে ও পরে জোটের বৈঠকে সক্রিয় অংশ গ্রহণ ছিল জামায়াতের। ওইসব বৈঠকে খালেদা জিয়ার সাজা হলে রাজপথে থেকে গণআন্দোলন গড়ে তোলার প্রত্যয় ছিল জামায়াতের। কিন্তু দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার দণ্ড হলে জোটের শরিকরা কম বেশি মাঠে নামলেও দেখা মিলছে না অন্যতম শরিক জামায়াতের। এ নিয়ে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে।

জামায়াতের একাধিক সূত্র এ বিষয়ে বলছে, খালেদা জিয়া দলীয় ও ব্যক্তিগত কারণে সাজাভোগ করছেন। এটা নিছক বিএনপির ইস্যু। এ কারণে জামায়াতের নেতাকর্মীরা বিএনপির চেয়ারপারসনের মুক্তির দাবিতে আন্দোলনে নামছে না। জামায়াত নেতাদের যুক্তি হচ্ছে, যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল জামায়াতের শীর্ষ নেতাদের সাজা হলে বিএনপি নিরব ভূমিকা রেখেছে। জামায়াত নেতারা মনে করেন, তখন বিএনপির ভাবখানা এমন ছিল যে, যুদ্ধাপরাধের দায়ে জামায়াত নেতাদের সাজার বিষয়টি একান্তই তাদের নিজস্ব বিষয়। বিএনপি যুদ্ধাপরাধের দায় নেবে কেন? তাই খালেদার সাজার বিষয়ে জামায়াত একই ধরণের মনোভাব পোষণ করছে।

দেড় যুগের মিত্রতা থাকলেও জোট নেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনকে জোটের ইস্যু মনে করছেন না তারা। তা ছাড়া সরকারের ‘দমনপীড়নে’র কারণে জামায়াত দলীয় কর্মসূচিই পালন করতে পারছে না। দলীয় কার্যালয় খুলতে পারছে না। এমন পরিস্থিতিতে বিএনপির সমর্থনে আন্দোলনে নামলে জামায়াতের বিরুদ্ধে ধরপাকড় জোরালো হবে। জোট মিত্রের জন্য আবারও প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পড়তে নারাজ জামায়াত।

জামায়াত নেতাদের মতে, কোন প্রক্রিয়ায় নির্বাচন হবে, তা এখনও নিশ্চিত না হলেও এবার বিএনপি ভোটে অংশ নেবে। তাই এ সময়ে কঠোর কর্মসূচিতে যাবে না বিএনপি। নির্বাচনমুখী জামায়াতও ভোটের আগে সরকারের সঙ্গে বিরোধ বাড়াতে চায় না।