প্রেম নিবেদনের জন্য বিশ্বের সেরা গন্তব্য?

জি এম নিউজ জি এম নিউজ

বাংলার প্রতিচ্ছবি

প্রকাশিত: ৯:২১ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০১৮ | আপডেট: ৯:২১:পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৭, ২০১৮

যদি ব্যাপারটা এমন হয় যে এবারের ভ্যালেন্টাইন ডে’তে আপনি কাউকে প্রপোজ করতে চাচ্ছেন তাহলে নিচের জায়গাগুলো নিজের নোট খাতায় লিখে রাখুন। এর কারণ হলো যখন আপনি বিয়ের জন্য প্রস্তাব করা বা প্রথমবার প্রেম নিবেদন করার পরিকল্পনা করছেন আপনাকে তিনটি জিনিস অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে।

  • প্রথমত, তিনি যেন অবশ্যই ‘হ্যাঁ’ বলেন সেই পরিস্থিতি তৈরি করা।
  • দ্বিতীয়ত, সঠিক সময় নির্বাচন করা।
  • আর তৃতীয়ত, সঠিক স্থানে প্রস্তাবটি করা। 

আসুন তাহলে এরকম কিছু জায়গা সম্পর্কে জেনে নিই-

চেরি ব্লসোমের বিস্ফোরণ সময়ে, কিওটো, জাপান

শিরোনাম পড়ে একটু খটকা লাগতে পারে। কারণ, প্রেম ভালবাসা নিয়ে কথা হচ্ছিল তবে বিস্ফোরণ এলো কীভাবে? না, খটকা লাগার কিছু নেই। এটা সৌন্দর্যের বিস্ফোরণ। কারণ জাপানের কিওটো শহরে বসন্তে ফোটা চেরি ফুলকে আসলে সোন্দর্যের বিস্ফোরণ ছাড়া অন্য কোনো নামে আখ্যা দেওয়া যায় না। এখানে আপনি খুঁজে পাবেন এক অপুর্ব সুন্দরের উৎস। আর ঠিক সেই মুহূর্তে এই সৌন্দর্যের সমুদ্রে যদি কেউ প্রেম নিবেদন করে, তাকে কি আর ফিরিয়ে দেওয়া যায়?

উত্তরের মেরুপ্রভা বা অরোরার নিচে, ফিনল্যান্ড 

উত্তরের মেরুপ্রভা বা অরোরা যা দেখতে যেতে পারেন ফিনল্যান্ডের ইনারি লেকের ধারে। ছোট্ট শান্ত একটি গ্রাম ইনারি। সেই গ্রামের রূপসী লেকটাও একই নামের। তবে অরোরাকে পাওয়ার জন্য রীতিমত বাজি ধরতে হয়। ভাগ্য সুপ্রসন্ন হলেই দেখা মিলবে সেই দৃশ্যের। আপনাকে লেক থেকে একটু দূরের কোনো ঘরে থাকতে হবে। ঘরের এক কোণায় চিম্নিতে জ্বলন্ত কাঠ থেকে আসবে হালকা তাপ। সেই তাপ গায়ে মেখে উত্তরের আকাশে দেখবেন অরোরাকে। মধ্য রাতের আকাশে দিনের আলোর মতো উজ্জ্বল অসংখ্য রংয়ের ক্রমাগত ছন্দের নৃত্য যে কোনো হৃদয়কে মোহিত করে তোলে। এই সময়ে যদি কাউকে মনের কথাটি বলতে পারেন তাহলে আশা করা যায় আপনি নিরাস হবেন না। তবে এই জন্য আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে দিনের পর দিন। আপনার ভাগ্য প্রসন্ন থাকলেই কেবল আপনি দেখা পেতে পারেন এই মেরুপ্রভা বা অরোরার। অরোরা আরও অনেক দেশ থেকেই দেখা যায়। যে দেশে যান না কেন যথাযথ সময় জেনে যাবেন। আর মোক্ষম দিনে, সঠিক সময়ে প্রিয় মানুষটিকে জানিয়ে দেবেন ‘ভালোবাসি’!

অরোরা
উত্তরের মেরুপ্রভা বা অরোরার নিচে একটি যুগল। ছবি: সংগৃহীত 

পন্ট নিউফ ব্রিজের সন্ধ্যায়, প্যারিস

প্যারিসকে তো বলাই হয় প্রেমের শহর। কিন্তু কেন প্যারিসকেই প্রেমের শহর বলা হয়? অনেকের মতে এর কারণ ‘আইফেল টাওয়ার’। কিন্তু একটা বিশেষ অংশ দাবি করেন এটা আসলে ‘পন্ট নিউফ ব্রিজের’ কারণে। পন্ট নিউফ প্রাচীনতম নদীসেতু হিসাবে পরিচিত। নদীবক্ষে এটি প্রাচীনতার পাশাপাশি আরও অনেক ইতিহাসের স্বাক্ষর বহন করে। এই সেতুর উপর দাঁড়িয়েই আপনি প্যারিসের সবচাইতে সুন্দর দৃশ্যগুলো দেখতে পাবেন। পন্ট নিউফ প্যারিসের এমন একটি চমকপ্রদ স্থাপত্য, যেটি সূর্যাস্তের সময়ে এক অনিন্দ্য সুন্দর আভা তৈরি করে। এই আভায় এখানে অসখ্যং মানুষ থাকলেও প্রায় সকলেই থাকেন নিস্তব্ধ। আর সকলেই এই অপুর্ব সুন্দর অনুভূতিকে তাদের মনের স্কেচবুকে এঁকে নিতে চান। প্রিয়জনকে মনের কথাটি বলার জন্য এর চাইতে ভালো স্থান আর কোথায় হতে পারে?


           প্রেমের শহর প্যারিসে, পন্ট নিউফ প্রাচীনতম নদী সেতু। ছবি: সংগৃহীত 

বোরা বোরার নির্জনতায়, তাহিতি

দক্ষিণ প্রশান্ত মহাসাগরের একটি দ্বীপ বোরা বোরা। এখানে আপনারা এমন কিছু সময় কাটাতে পারবেন যা অন্যদের সাথে খুব একটা ভাগ করতে হবে না। এখানকার সামুদ্রিক জীবনের সাথে স্নোরকেলিংয়ের অনন্য অভিজ্ঞতা যে কোনো মানুষকে মোহিত করবে। বোরা বোরায় আপনি হারিয়ে যেতে পারবেন আপনার সবচাইতে কাছের মানুষটিকে সাথে নিয়ে। আর এমন অসাধারণ একটা জায়গায় মনের কথা জানালে তো যে কেউই মুগ্ধ হবে, আর তার উত্তরটাও ইতিবাচক হবে বলে আশা করা যায়।

bora bora
বোরা বোরাতে একান্ত সময়ে এক যুগল। ছবি: সংগৃহীত 

তাজমহলের রাজকীয়তায়, ভারত

ভালোবাসার উপহার হিসেবে তাজমহলের তুলনা বোধ হয় আর একটিও নেই এই বিশ্বে। আগ্রার আভিজাত্যে যমুনার তীরে সেই কোন অতীতে এক প্রেমিক সম্রাট তার অর্ধাঙ্গিনীকে ভালোবেসে গড়েছিলেন এই মহল। তাজের প্রতি কারুকার্যে প্রেমের মূর্ছনা যেমন আছে তেমনি আছে বিরহ, প্রাসাদ ষড়যন্ত্রের হাহাকার। প্রিয় মানুষটিকে এই বিস্ময়কর সৃষ্টির সামনে এনে যদি বলেন ‘ভালোবাসি’ সে কি পারবে আপনাকে ফিরিয়ে দিতে?

tajmohol
আগ্রার তাজমহলের সামনে একটি যুগল। ছবি: সংগৃহীত 

তাহলে আর দেরি কেন? এখনই সাজিয়ে ফেলুন পরিকল্পনা। আপনার পছন্দ অনুযায়ী যে কোনো একটি গন্তব্যে চলে যান প্রিয় মানুষটিকে নিয়ে। শুরু হোক নতুন করে পথচলা। সূত্র: প্রিয়.কম