নিখোঁজ ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

রংপুর ব্যুরো

প্রকাশিত: ১:২২ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০২১ | আপডেট: ১:২৩:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ৩০, ২০২১

দিনাজপুর অফিস- দিনাজপুরের বীরগঞ্জের এক নিখোঁজ ব্যবসায়ীর লাশ কাহারোলের বটতলা বাজারের অনতিদুর থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বীরগঞ্জ পৌরসভার কাচারীপাড়ার মৃত লাখরাজ দাসের ছেলে কৃষনা চন্দ্র দাস (৪২) গত ২৮ এপ্রিল বিকেলে বাড়ী থেকে নিখোঁজ হয়। সে রাতে বাড়ীতে ফিরে আসেনি। পরদিন ২৯ এপ্রিল সকালে কাহারোল উপজেলার রামপুর বটতলা বাজার সংলগ্ন ঢাকা-পঞ্চগড় মহাসড়কের পাশে স্থানীয় লোকজন তাকে মৃত্যু অবস্থার মাটিতে পরে থাকতে দেখে। প্রত্যক্ষদশি’র প্রাথমিক ধারনা মদ্যপানে তার মৃত্যু হয়েছে। কারন সে প্রতিনিয়ত ঐ এলাকার আদিবাসীর মাদক পল্লীতে গিয়ে মদ পান করত, যা সকলেই জানে।

বীরগঞ্জ পৌরসভার বহুল পরিচিত মৃত কৃষনা চন্দ্র দাসের লাশ নিশ্চিত করেছে তার পরিবারের লোকেরা। মহাসড়কের পাশে নিয়মিত মদ্যপায়ী কৃষনার মৃতদেহ নিশ্চিত হয়ে তার ওয়ারিশ বর্গ ও স্থানীয়রা থানা পুলিশকে সংবাদ দেন। সংবাদ পেয়ে কাহারোল থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে এসে লাশের সুরাতাহাল রিপোট তৈরী করে কাহারো কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ উদ্ধার করে স্বজনদের কাছে প্রদান করা হয়।

এলাকাবাসীন জানান, ওই এলাকার আদিবাসীর মাদক পল¬ীতে প্রতিনিয়ত চোলাই মদ (চুয়ানী) বেচাকেনা হয়। দলে দলে খোরেরা দল বেধে এসে মদ পান করে, তারা মদ্যপ অবস্থায় বটতলা বাজারে এসে মাতলামীও করে। এ নিয়ে মাঝে মধ্যে জনপ্রতিনিধিরা তাদেরকে গালমন্দ করার কথাও অনেকে বলেছেন।

দীর্ঘদিন থেকে চলমান এই অবৈধ ব্যবসার কারনে এই এলাকার চুয়ানি পল¬ীতে প্রায় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে কিন্ত নেশা খোরদের দমাতে পারেনি। মরন নেশা চোলাই মদ প্রস্তুত ও সরবরাহ কারীদের সাথে অনেকের সখ্যতা রয়েছে। এমন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলাকাবাসী প্রশাসনের উর্দ্ধতন মহলের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email