প্রশাসনের পক্ষপাত ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগে দিনাজপুর পৌর নির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী আহম্মেদ শফি রুবেল এর সংবাদ সম্মেলন

এন.আই.মিলন এন.আই.মিলন

দিনাজপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৩:১৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৮, ২০২১ | আপডেট: ৩:১৪:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৮, ২০২১

এন.আই.মিলন, দিনাজপুর প্রতিনিধি- দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ৮ জানুয়ারী শুক্রবার দুপুরে জেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান, দিনাজপুর পৌর নির্বাচনে লাঙ্গল মার্কার প্রার্থী আহম্মেদ শফি রুবেল প্রশাসনের পক্ষপাত ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে রুবেল লিখিত বক্তব্য পাঠ করে জানায়, আগামী ১৬ জানুয়ারী দিনাজপুর পৌরসভা নির্বাচনে ভোট গ্রহনের নির্বাচনি প্রচার প্রচারনায় প্রশাসন পক্ষপাত, স্বজনপ্রীতি এবং আওয়ামীলীগের নৌকা মার্কার প্রার্থীর প্রতিদ্বন্দীর বিরুদ্ধে বৈরী আচরনের কারনে আমরা সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে অভিযোগ করছি যে, ৭ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে রাত পযর্ন্ত শহরের প্রধান সড়ক মর্ডান মোড় দখল করে রাস্তায় মঞ্চ তৈরী করে আওয়ামীলীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী রাশেদ পারভেজের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনার সভা করা হয়েছে। সভায় কমপক্ষে ৩০টি মাইক ব্যবহার করে শহরের কালিতলা থানা মোড় থেকে বাহাদুর বাজার সহ অন্যান্য অলি গলিতে উচ্চ শব্দে প্রচারনা চালানো হয়েছে। সেখানে পুলিশি পাহারায় সমাবেশ করা হয়েছে এবং জরুরী সেবা দানকারী দমকল বাহিনীর গাড়ী ব্যবহার করে সভাস্থলে পানি ছিটানো হয়েছে। নির্বাচনী সভা চলাকালে শহরে যানজটে নাগরিক দূর্ভোগ, ভোগান্তি ও চলাচলের বিঘœ সৃষ্টি করে। যাহা নির্বাচনী আচরন বিধি লংঘনের মধ্যে পড়ে।

বিষয়টি তাৎক্ষনিক জেলা প্রশাসক, জেলা নির্বাচন অফিসার সহ সংশ্লিষ্টদের কাছে মোবাইল ফোনে অভিযোগ জানিয়ে ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানানো হয়েছিলো। কিন্তু তারা কোন ব্যবস্থা গ্রহন না করে প্রসাশন পক্ষপাত মুলক আচরন করায় নিরপেক্ষ নির্বাচন, ভোট গ্রহন এবং ফলাফল প্রকাশের ক্ষেত্রে আমরা সঠিক নির্বাচন এবং প্রকৃত ফলাফল প্রাপ্তির ক্ষেত্রে সন্দিহান।
একই দিনে লাঙ্গল মার্কার কর্মিরা নির্বাচনী প্রচারনা শেষে প্রধান কার্যালয় কালিতলায় ফিরে আশার পথে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ না দিয়ে রাত্রী ৮টা ০৫মিনিটে শহরের স্বষ্টিতলা মোড়ে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট কর্মিদের কাছ থেকে হ্যান্ড মাইক কেড়ে নিয়ে আটক রাখে, যা নির্বাচনী কাজে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। পক্ষান্তরে ঐ সময়ে ব্যপক শোডাউন নিয়ে মর্ডান মোড়ে নৌকা মার্কার প্রার্থীর নির্বাচনী সমাবেশ কার্যক্রম পুলিশী পাহাড়ায় চলছে এবং রাত্রী ৯টা পযর্ন্ত উচ্চস্বরে প্রতিটি মাইকে বক্তব্য চলছিলো।

এতে করে প্রচারনার ক্ষেত্রে প্রশাসনের পক্ষপাত মূলক যে ভুমিকা দেখাচ্ছে তাতে ১৬ জানুয়ারীর নির্বাচন অবাধ সুষ্ট ও নিরপেক্ষ নির্বাচন বাধা গ্রস্থ হবে। লাঙ্গল মার্কার প্রার্থীর জনপ্রিয়তা, বিজয় নিশ্চিত বুঝতে পেরে নৌকা মার্কার প্রার্থী প্রভাব খাটিয়ে প্রশাসনকে ব্যবহার করছে।

এ ব্যপারে আমরা সন্মানিত সাংবাদিকদের মাধ্যমে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের কাছে অবাধ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের পাশাপাশি পক্ষপাত হীন ফলাফল প্রকাশের নিশ্চয়তা দাবী করছি। অন্যথায় ব্যাতয় ঘটলে সমস্ত দায় দায়িত্ব স্থানীয় প্রশাসন ও নির্বাচন কমিশনারকে বহন করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য আলমগীর শিকদার লোটন, দিনাজপুর জেলা জাপার সহ সভাপতি এ্যাড. মীর তহিদুল ইসলাম স্বপন, সাইফুল্ল্যা চৌধুরী, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক এ্যাড. সুধীর চন্দ্র শীল, জাপা নেতা তুহিন ইসলাম, সফিক আহম্মেদ, নাজমুল ইসলাম মিলন, লাইছুর রহমান লাবু সহ নেতৃবৃন্দ।